03:59pm  Monday, 25 Mar 2019 || 
   
শিরোনাম
 »  সেবা পেতে শুধু ৯৯৯-এ একটি কলই যথেষ্ট      »  বাংলাদেশকে তুচ্ছ করার আগে পরিসংখ্যানটা দেখা দরকার চির আফ্রিদির!     »  চ্যানেল আইতে ৭ম রং তুলিতে মুক্তিযুদ্ধ,‘ছোটকাকু’ সিরিজ এবারে সাভারে ও মুক্তিযুদ্ধের ছবি গেরিলা     »  ঢাকা জেলার তৎকালীন সহ-সভাপতির ওপর শ্রীপুরে সন্ত্রাসি হামলার প্রতিবাদ বিএমএসএফ      »  “ওয়াকফে মোহাম্মদীস ওয়াকফ এষ্টেট” এর সম্পত্তি উদ্ধারের দাবীতে দিনাজপুরে মানববন্ধন      »  খুলনা সিটির ১২ কাউন্সিলর আ'লীগে যোগ দিলেন     »  পা হারানো শিশু নিপা ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পেয়েছে     »  গোবিন্দগঞ্জে ট্রেনে কাটা পড়ে একজনের মৃত্যু     »  দুই হিন্দু কিশোরীকে ‘ধর্মান্তরিত করে’ বিয়ের, ব্যাখ্যা চাইলো ভারত     »  মার্কিন দূতাবাসে সতর্কতা জারি    



এসএসসি পরীক্ষার্থী মুন্নীকে হত্যার দায়ে বখাটে এহিয়া’র মৃত্যুদণ্ড দিল সুনামগঞ্জ দায়রা জজ
১৩ মার্চ ২০১৯, ২৯ ফাল্গুন ১৪২৫, ৫ রজব ১৪৪০



হুমায়রা আক্তার মুন্নীহুমায়রা আক্তার মুন্নীপড়ার টেবিলে বখাটের এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে স্কুলছাত্রী হুমায়রা আক্তার মুন্নীকে হত্যার দায়ে মো.এহিয়া সরদারকে (২৪) নামের একজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ বুধবার বেলা ১১টার দিকে সুনামগঞ্জের দায়রা জজ ওয়াহিদুজ্জামান শিকদার এ রায় দেন।

২০১৭ সালের ১৬ ডিসেম্বর রাতে সুনামগঞ্জের দিরাই পৌর শহরের মাদানী মহল্লায় এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। হুমায়রা ওই বছরের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল। তার বাবা হিফজুর রহমান ইটালিপ্রবাসী। তাদের বাড়ি দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের নদগীপুর গ্রামে।

দণ্ডপ্রাপ্ত এহিয়া সরদার দিরাই উপজেলার করিমপুর ইউনিয়নের সাকিতপুর গ্রামের ছেলে। এই মামলার অন্য আসামি তানভীর আহমদ চৌধুরীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাঁকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ছেলেমেয়েকে পড়াশোনা করাতে হুমায়রার মা রাহেলা বেগম মাদানী মহল্লায় মেয়ে ও একমাত্র ছেলে মাহিদ আহমদকে নিয়ে ভাড়া বাসায় থাকতেন। হুমায়রা দিরাই বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী ছিল। তাকে স্কুলে যাওয়া-আসার পথে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করত বখাটে এহিয়া সরদার। এ নিয়ে স্থানীয়ভাবে বিচার-পঞ্চায়েত হলে এহিয়া ভবিষ্যতে এমন কাজ থেকে বিরত থাকবে বলে অঙ্গীকার করে। কিন্তু এরপরও তার বখাটেপনা থামেনি। হুমায়রাও তার প্রস্তাবে কখনো রাজি হয়নি। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে এহিয়া ২০১৭ সালের ১৬ ডিসেম্বর রাত সাড়ে সাতটার দিকে মাদানী মহল্লার ওই বাসায় গিয়ে হুমায়রার পড়ার টেবিলে তাকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় হুমায়রাকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে মারা যায়।

এ ঘটনার পরদিন তৎকালীন শিক্ষামন্ত্রী ও পুলিশের মহাপরিদর্শক দ্রুত এহিয়াকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেন। ঘটনার প্রতিবাদে ও এহিয়াকে গ্রেপ্তারের দাবিতে বিভিন্ন সংগঠন মাঠে নামে।

ঘটনার দুদিন পর ১৮ ডিসেম্বর হুমায়রার মা রাহেলা বেগম বাদী হয়ে এহিয়া সরদার ও তার বন্ধু মাদানী মহল্লা এলাকার বাসিন্দা তানভীর আহমদ চৌধুরীকে (২৪) আসামি করে দিরাই থানায় হত্যা মামলা করেন। পুলিশ ওই দিনই তানভীরকে গ্রেপ্তার করে। আর ২০ ডিসেম্বর দিবাগত গভীর রাতে সিলেটের মাসুকবাজার এলাকার একটি বাসা থেকে এহিয়া গ্রেপ্তার হয়।

এই মামলায় পুলিশ গত বছরের ৭ জানুয়ারি আদালতে এহিয়া সরদারের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয়। ৬ মে আদালত অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন। এরপর আটজন সাক্ষী আদালতে সাক্ষ্য দেন। আজ রায় ঘোষণার সময় এহিয়া সরদার আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

রাহেলা বেগম বলেন,‘আমি এই রায়ে সন্তুষ্ট। দ্রুত এই রায় কার্যকরের জন্য দাবি জানাচ্ছি।’
এই নিউজ মোট   852    বার পড়া হয়েছে


আইন-আদালত



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.