04:23pm  Tuesday, 25 Jun 2019 || 
   
শিরোনাম
 »  লন্ডন উৎসবে ‘ইতি, তোমারই ঢাকা’     »  আফগানদের ৬২ রানে পরাজিত করল বাংলাদেশ     »  সাকিবের ঘূর্ণিপাকে পড়ে জয়ের বন্দরে পথ হারালো আফগান     »  কুলাউড়ায় দুর্ঘটনা কবলিত ট্রেনে অতিরিক্ত যাত্রী ছিল ‘এক হাজার’     »  সিলেট শিক্ষা ট্রাস্টের বৃত্তি পেলো ৬১ জন মেধাবী শিক্ষার্থী     »  ধারাবাহিক প্রতিবেদন-১, মাদক সিন্ডিকেট: মাদকে সয়লাব শিবগঞ্জের মনাকষা, দেখার কেউ নেই     »  কোন এখতিয়ারে জাতীয় সংসদের প্যাডে পুলিশের কনষ্টবল নিয়োগে এমপি হারুনের সুপারিশ     »  সাবেক ওসি মোয়াজ্জেমকে কারাবিধি অনুযায়ী ব্যবস্থার নির্দেশ      »  দুই খেলায় দেশ সেরা রাজবাড়ীর দুই শিক্ষার্থী     »  কালোটাকা সাদা করা সংবিধানের চেতনাবিরোধী   



মেয়ের ছবি হাতে রাস্তায় দাড়িয়ে হত্যাকারীর বিচার দাবি বাবার
১০ এপ্রিল ২০১৯, ২৭ চৈত্র ১৪২৫, ৩ শাবান ১৪৪০



আজ বুধবার জেলা সদরের প্রেসক্লাবের সামনে মেয়ে হত্যার বিচারের দাবিতে ব্রাহ্মনবাড়িয়ায় হাতে ছবি নিয়ে এক বাবা অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন। 

‘হয় আপোষ করো, না হয় মরো’- বিবাদীপক্ষের কাছ থেকে এমন হুমকি পাওয়ার পর অবস্থান কর্মসূচিতে যান ওই বৃদ্ধ। মেয়ে কামরুন নাহার তুর্ণার হত্যার বিচার ও নিজের জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ষাটোর্ধ্ব ওই ব্যক্তি।

জানা গেছে, ২০১২ সালের জানুয়ারি মাসে জেলার আশুগঞ্জ উপজেলার চরচারতলা গ্রামের আমিরুল হকের ছেলে আরিফুল হক রনির সঙ্গে পারিবারিকভাবে কামরুন নাহার তুর্ণার বিয়ে হয়। তাদের একটি মেয়ে সন্তানও রয়েছে। বিয়ের পরই তাদের মধ্যে পারিবারিক বিষয় নিয়ে কলহ দেখা দেয়। এই কলহের জের ধরে গত ২০১৭ সালের ২৪ এপিল তুর্ণাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন রনি। হত্যার সময় তুর্ণা তিন মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা ছিলেন। হত্যার পর তুর্ণার মরদেহ বাড়ির একটি পরিত্যক্ত পানির ট্যাঙ্কে লুকিয়ে রাখা হয়।

এ ঘটনায় তুর্ণার স্বামী রনিকে আসামি করে ২৫ এপ্রিল আশুগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন তৃণার বাবা মফিজুল হক। পরে ওই বছরের ২১ মে আদালতে আত্মসমর্পণ করলে বিচারক রনিকে কারগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। পরবর্তীতে জামিনে মুক্ত হন রনি।

ইতিমধ্যে আদালতে হত্যা মামলা অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। এরপর থেকেই মামলা তুলে নিয়ে আপোষ করার জন্য তুর্ণার বাবা মফিজুল হককে নানাভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন রনি ও তার পরিবারের লোকজন।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে মফিজুল হক সাংবাদিকদের বলেন, ‘আসামি পক্ষের লোকজন আমাকে বারবার হুমকি দিচ্ছে আপোষ না করলে আমাকে মেরে ফেলবে। আমার তো কোনো ওয়ারিশ নেই, তাই আমাকে হত্যা করলে আমার বিচার চাওয়ারও কেউ নাই। সেজন্য আমাকে এলাকার সর্দারদের (মাতবর) দিয়ে চাপ দিচ্ছে মামলা তুলে নিতে।’

তিনি বলেন, ‘আমি একা অসহায়ত্ববোধ করছি, আমার কেউ নেই। আমি বিপদে আছি। আমার মেয়ের হত্যার বিচার যেন হয়, আসামির যেন সর্বোচ্চ শাস্তি হয়।

এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন বলেন, ‘মফিজুল হক তাকে হুমকি দেওয়ার কোনো অভিযোগ থানায় করেছেন কি না সেটি আমার জানা নেই। তবে অভিযোগ করে থাকলে বিষয়টি তদন্ত করে আদালতকে জানানো হবে।

এই নিউজ মোট   3216    বার পড়া হয়েছে


আইন-আদালত



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.