04:05am  Wednesday, 24 Apr 2019 || 
   
শিরোনাম
 »  সরকারি ভূমি দখল করে ব্যবসা করা যাবে না     »  দিনাজপুরে পরিবেশের পরমবন্ধু ৯টি শকুন অবমুক্ত     »  খালেদা জিয়া প্যারোল চাইলে শেখ হাসিনা জামিন দিবেন     »  নির্যাতন সয়তে না পেরে ছয় তলার কার্নিশ বেয়ে নামার চেষ্টা গৃহকর্মীর!     »  সারাবিশ্বের মন্ত্রীরা এখন বাংলাদেশী মন্ত্রীদের পরামর্শ চায়     »  তোমরা কি শেখ হাসিনাকে বিচার দিবা? উত্তরে বাচ্চারা সমস্বরে বলে 'জ্বি'      »  অমুসলিমদের উপাসনালয় রক্ষায় ওমর (রা.) এর ফরমান     »  প্রথম বাংলাদেশি রোবট 'লি' হাঁটে ও কথা বলে     »  তিন বছর পর রাজ চক্রবর্তীর পরিচালনায় জিৎ-কোয়েল      »  মার্কিন নিষেধাজ্ঞা অগ্রাহ্য করে ইরানের পাশে চীন-তুরস্ক   



সিরাজের নির্দেশে নুসরাত হত্যাকাণ্ড বাস্তবায়ন করে শামীম ও নুর উদ্দিন
১৩ এপ্রিল ২০১৯, ৩০ চৈত্র ১৪২৫, ৬ শাবান ১৪৪০



সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে (১৮) কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় নিজের সম্পৃক্ততা স্বীকার করেছেন গ্রেপ্তারকৃত নুর উদ্দিন। আজ শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে রাজধানীর ধানমন্ডির ৪ নম্বর রোডস্থ পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান ডিআইজি ও পিবিআই প্রধান বনোজ কুমার মজুমদার।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, নুসরাত হত্যাকাণ্ডে নিজের সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেছে নুর উদ্দিন। ঘটনাটি পরিকল্পিত বলেও জানিয়েছেন তিনি। জবানবন্দিতে সে জানায়, অপারেশনে চারজন বোরখা পরিহিতের মধ্যে দুই জন ছেলে আর বাকি দুইজন মেয়ে ছিল। তারা সবাই ওই মাদরাসার শিক্ষার্থী।

মিশনে অংশ নেয়া চারজনের মধ্যে ছাত্রলীগ সভাপতি শাহদাত হোসেন শামীমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আর শম্পা বা চম্পা নামে যে ছিল সে বাইরে এসে বলছিল নুসরাতকে মারছে। সেই শম্পা বা চম্পাও গ্রেপ্তার হয়েছে।

সম্মেলনে পিবিআই আরো জানায়, এ ঘটনায় জড়িত মোট ১৩। এখন পর্যন্ত ৭ জন গ্রেপ্তার হয়েছে। সিরাজ উদ দৌলার নির্দেশই হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে শামীম ও নুর উদ্দিন। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- গতরাতে ধরা পড়া শামীম, এস এম সিরাজ উদ দৌলা, নুর উদ্দিন, কাউন্সিলর মাকসুদ আলম, জুবায়ের আহম্মেদ, জাবেদ হোসেন এবং আফছার উদ্দিন। বাকিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

গত ৬ এপ্রিল সকালে আলিম পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসায় যান নুসরাত। সেদিনই নুসরাতকে পরীক্ষা কেন্দ্রের ছাদে নিয়ে যায়। সেখানে ৪ জন বোরকা পরিহিত অবস্থায় ছিল। তারা মাদ্রাসার অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে করা শ্লীলতাহানির মামলা তুলে নিতে চাপ দেয়। নুসরাত অস্বীকৃতি জানালে তার গায়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। ওই দিনই তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় পাঁচদিন পর ১০ এপ্রিল রাতে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নুসরাত। বৃহস্পতিবার গ্রামের বাড়িতে তার দাফন সম্পন্ন হয়। এ ঘটনায় ৮ এপ্রিল রাতে অধ্যক্ষ ও পৌর কাউন্সিলরসহ ৮ জনের নাম উল্লেখ

নুসরাত হত্যার বিচার দাবিতে মানববন্ধন হলো গণভবন থেকে বঙ্গভবন পর্যন্ত


এই নিউজ মোট   444    বার পড়া হয়েছে


হ্যালোআড্ডা



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.