08:42pm  Monday, 18 Nov 2019 || 
   
শিরোনাম
 »  গুরুদাসপুরে ১৪২ প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীকে উপবৃত্তির চেক প্রদান     »  আজ কম্বোডিয়ার উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়েছেন স্পিকার     »  ‘আত্মীয়তার বন্ধন ছিন্নকারী জান্নাতে যাবে না’     »  পাকিস্তান ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে      »  গ্যাসলাইনের পুরনো পাইপের লিকেজ থেকে গ্যাস জমে বিস্ফোরণ ঘটেছে!     »  প্রথম বিশ্বজয়ী নাজমুন নাহার গেম চেঞ্জার অ্যাওয়ার্ড পেলেন     »  ইউএই’র উদ্যোক্তাদের আরও বড় আকারের বিনিয়োগ প্রত্যাশা প্রধানমন্ত্রীর     »  দোতলা থেকে লিফট ছিঁড়ে পড়ে গেলেন বিএনপি নেতারা     »  পেঁয়াজে ২ সপ্তাহ মুনাফা না করার আহ্বান জানান মেয়র খোকন      »  বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের কাছে উড়ে গেল নেপাল, সেমিতে শান্তরা   



শিক্ষকের ছোঁড়া বেতের আঘাতে চোখ নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা হাবিবার
০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২৪ ভাদ্র ১৪২৬, ০৮ মহররম ১৪৪১



হবিগঞ্জ সদর উপজেলার যাদবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকের বেতের আঘাতে হাবিবা আক্তার (৮) নামে এক শিশুর চোখ নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। গুরুতর অবস্থায় ওই শিশুকে সিলেট হাসপাতালে প্রেরণ করা হলে পরে তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। সে যাদবপুর গ্রামের শাহিন মিয়ার মেয়ে এবং ওই স্কুলের ৩য় শ্রেণির ছাত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রবিবার দুপুর ১২টার দিকে ক্লাস চলাকালে যাদবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিরঞ্জন দাশ তার হাতের একটি বেত ছুঁড়ে মারলে তা সরাসরি হাবিবার চোখে লাগে। এতে তার চোখ থেকে রক্ষকরণ হলে সে লুটিয়ে পড়ে। পরে স্কুলে হৈ চৈ শুরু হলে স্থানীয় লোকজন হাবিবাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মিঠুন রায় তাকে পরীক্ষার পর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে সিলেটে রেফার করেন। পরে তার স্বজনরা ঢাকা চক্ষু হাসপাতালে নিয়ে যায়।

হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. মিঠুন রায় জানান, বেতটি সরাসরি হাবিবার চোখের ভিতর আঘাত করায় তার চোখ নষ্ট হয়ে গেছে। চোখটি ভালো হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম।

এ ব্যাপারে সহকারী শিক্ষক নিরঞ্জন দাশের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ঘটনার সময় তিনি ২য় শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পড়া নিচ্ছিলেন। এ সময় যারা পড়া পাড়ছিল না তাদেরকে টুকটাক বেত্রাঘাত করি। কিন্তু ওই ক্লাসের সামনে কিছু শিক্ষার্থী দাঁড়িয়ে হৈ চৈ করলে আমি তাদের বার বার ধমক দিলেও তারা সেখানে দাঁড়িয়ে থাকলে হাতে থাকা বেতটি ছুঁড়ে মারলে তা হাবিবার চোখে লাগে। এটি অনাকাঙ্খিত। ওই ছাত্রীর যত ভালো চিকিৎসা প্রয়োজন হয় আমি করাব।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মাসুক আলীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এ ব্যাপারে কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

হবিগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা শাখাওয়াত হোসেন রুবেল জানান, এ ব্যাপারে এখনও কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

হবিগঞ্জ সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ জানান, আমরা বিষয়টি শুনেছি। এখন বিস্তারিত তথ্য নেওয়ার এবং খতিয়ে দেখার চেষ্টা করছি।

শ্রেণিকক্ষে বেত নিয়ে শিক্ষকের যাওয়া এবং এ ধরনের ঘটনা কিভাবে দেখছেন জানতে চাইলে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক জানান, বেত দিয়ে আঘাত করার বিধানই নেই। শুধু তাই নয় শ্রেণিকক্ষে বেত নিয়ে যাওয়ারও অনুমতি নেই। যদি কেউ এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়ে থাকে তবে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


এই নিউজ মোট   1487    বার পড়া হয়েছে


শিশু নির্যাতন



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.