11:18pm  Saturday, 19 Oct 2019 || 
   
শিরোনাম



পাবনায় ছাত্রকে নির্যাতনের অভিযোগ প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে
২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মহররম ১৪৪১



গত রোববার পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার ছোট বিশাকোল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল মজিদের বিরুদ্ধে ইমন হোসেন (১৪) নামে এক ছাত্রকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। ইমন ওই বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির মানবিক বিভাগের ছাত্র ও বিশাকোল গ্রামের আব্দুল মালেকের ছেলে।

ছাত্রটি বর্তমানে ভাঙ্গুড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। গতকাল রোববার এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সৈয়দ আশরাফুজ্জামান বরাবরে লিখিত অভিযোগ  দিয়েছে ইমনের বাবা আব্দুল মালেক।

আহত ছাত্র ইমন হোসেন সাংবাদিকদের জানায়, গত বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে বিদ্যালয়ে রুটিন মোতাবেক শিক্ষক না থাকায় প্রধান শিক্ষক আব্দুল মজিদ নিজেই নবম শ্রেণির বাংলা দ্বিতীয় পত্র ক্লাসে হাজির হন। শিক্ষক না থাকায় শিক্ষার্থীরা ওই সময়ে চেঁচামেচি করছিল। এ সময় সে প্রথম সারিতে বসা অবস্থায় ছিল। সে তখন দাঁড়িয়ে সবাইকে চেঁচামেচি থামাতে বলে। এর পরেই প্রধান শিক্ষক দ্রুত তার কাছে এসে মাথার চুল ধরে কানের ওপর বেশ কয়েকটি থাপ্পড় মারে ও পিঠের ওপর তিন-চারটি কিল মারে। এ সময় প্রধান শিক্ষক ইমনকে বলেন ‘তুই বড় মাস্তান হইছিস’।

ইমন জানায়, এ সময় ওই শিক্ষক আরও কিছু অশালীন কথা বলেন। এরপর ডান কান দিয়ে রক্ত বের হতে থাকলে সে নিজেই বাইরে গিয়ে কানের রক্ত ধুয়ে ফেলে এবং মাথায় পানি নেয়।

ইমন আরও জানায়, বিকেলের দিকে কানে বেশি ব্যাথা শুরু হলে স্থানীয় ডাক্তারের নিকট প্রাথামিক চিকিৎসা নেয়। কিন্তু তার কানের ব্যাথা বাড়তে থাকলে গত শুক্রবারে নাক-কান-গলা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক মো. রফিকুল ইসলামের কাছে দেখান। এ সময় চিকিৎসক জানান, কানের কিছুটা ক্ষতি হয়েছে উল্লেখ করে তার অভিভাবকে অবগত করেন।

ভুক্তভোগী ওই ছাত্র বলে, ‘কিন্তু কানের ব্যাথা না কমায় গত শনিবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছি।’

এ বিষয়ে ইমনের বাবা আব্দুল মালেক বলেন, ‘একজন শিক্ষক এভাবে আমার ছেলেকে কানের ওপর মেরে কানটার ক্ষতি করবে এটা কখনো আমি আশা করিনি। আমি এর সঠিক বিচার চাই।’

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন বিশাকোল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল মজিদ। তিনি বলেন, ‘শ্রেণিকক্ষে বেয়াদবি করায় তাকে একটা থাপ্পড় মারা হয়েছে। কিন্তু সে ঘার ঘুরোতেই হয়ত তার কানে লেগেছে। তবে আমি তাকে হাসপাতালে দেখতে গিয়েছি এবং বর্তমানে চিকিৎসার খোঁজ-খবর রাখছি।’

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সাইফুল আলম বলেন, ‘শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রকে কানের ওপর থাপ্পড় মারার অভিযোগ পেয়ে ওই বিদ্যালয়ে পরিদর্শন করেছি। প্রথমেই শিক্ষার্থীকে যথাযথ চিকিৎসার ব্যবস্থা নিতে প্রধান শিক্ষকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অধিকতর তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ঘটনার বিষয়ে ইউএনও সৈয়দ আশরাফুজ্জামান বলেন, ‘লিখিত অভিযোগটি এখনো আমার হস্তগত হয়নি। তবে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের মাধ্যমে বিষয়টি আমি জেনেছি। আহত শিক্ষার্থীকে তাৎক্ষণিক চিকিৎসার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

ইউএনও আরও বলেন, ‘কোনো শিক্ষার্থীকে বেত্রাঘাত বা আঘাত করা যাবে না। ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ তদন্তে সত্য প্রমাণিত হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’
এই নিউজ মোট   792    বার পড়া হয়েছে


শিশু নির্যাতন



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.