11:32pm  Saturday, 19 Oct 2019 || 
   
শিরোনাম



ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে বিএনপি কি জিততে পারবে?
০৩ অক্টোবর ২০১৯, ১৮ আশ্বিন ১৪২৬, ০৩ সফর ১৪৪১



১৯৯৯ সালে গঠিত নবীনগর পৌরসভায় ২০০৩ সালের জানুয়ারি থেকে ২০০৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত নবীনগর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. মলাই মিয়া পৌর প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর ২০১৪ সালের অক্টোবর মাসে নবীনগর পৌরসভার প্রথম নির্বাচনে নবীনগর থানা বিএনপির সহসভাপতি (বর্তমান মেয়র) মোহাম্মদ মাঈন উদ্দিন মাইনু মেয়র নির্বাচিত হন।


আগামী ১৪ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর পৌরসভার নির্বাচন। ‘ধানের শীষ’ দলীয় প্রতীকে প্রার্থী থাকার পরও বিএনপি ঘরানার আরো তিনজন প্রার্থী এবার ‘মেয়র’ পদে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। এমন অবস্থায় বিএনপিসহ সাধারণ ভোটারদের মুখে মুখে আলোচিত হচ্ছে বিএনপির অবস্থান নিয়ে।


কিন্তু এবারের পৌর নির্বাচনে বিএনপি থেকে ধানের শীষ প্রতীকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয় নবীনগর পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ধনাঢ্য ব্যবসায়ী হাজী মো. শাহাবুদ্দিনকে। এ অবস্থায় বিএনপি নেতা বর্তমান মেয়র মাইনু বিক্ষুব্ধ হয়ে বিএনপি থেকে পদত্যাগ করে ‘মোবাইল’ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। অন্যদিকে নবীনগর থানা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর প্রশাসক মো. মলাই মিয়াও এবার ‘জগ’ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। পাশাপাশি নবীনগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রদল নেতা ফারুক আহমেদ ‘নারিকেল গাছ’ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। এ অবস্থায় বিএনপি এবারের নির্বাচনে মেয়র পদটি শেষ পর্যন্ত তাদের দখলে ধরে রাখতে পারবেন কিনা; সেটি নিয়ে খোদ বিএনপিসহ স্থানীয় বিভিন্ন মহলে এখন জোরেসোরে আলোচনা হচ্ছে। প্রশ্ন উঠছে, বিএনপি কি পারবে ‘মেয়র’ পদটি ধরে রাখতে?

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপি সমর্থিত একাধিক স্থানীয় সাধারণ ভোটাররা জানান, বিএনপি ঘরানার তিন প্রার্থীর একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী এবার ধানের শীষের ব্যাপক ক্ষতি করবে বলে মনে হচ্ছে। তাই সম্মিলিতভাবে একজন প্রার্থী হলে বিএনপির বিজয় শতভাগ সুনিশ্চিত হতো।

ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী মো. শাহাবুদ্দিন বলেন, নবীনগর হলো বিএনপির ঘাঁটি। সুতরাং প্রার্থী যতই থাকুক, ভোটাররা ধানের শীষ প্রতীক দেখেইে ভোট দিবেন। সুতরাং নির্বাচনে বিএনপির বিজয় সুনিশ্চিত।

উপজেলা বিএনপির সদ্য পদত্যাগকারী সহসভাপতি ও নবীনগর পৌরসভার বর্তমান মেয়র মোহাম্মদ মাঈন উদ্দিন মাইনু বলেন, এটি পৌরসভা নির্বাচন। এখানে ব্যক্তির আচার আচরণ তথা ইমেজটাই বড় বিষয়। পাঁচ বছর আমি যে পরিমাণ কাজ করেছি; আশা করি ভোটাররা এবারও তার মূল্যায়ন করে আমাকে আবারো বিজয়ী করবেন।

নবীনগর পৌরসভার সাবেক প্রশাসক ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. মলাই মিয়া বলেন, এটিই আমার শেষ নির্বাচন। পৌরসভার শুরুতে প্রশাসক হিসেবে ছয় বছর যে পরিমাণ উন্নয়নমূলক কাজ করেছি আশা করছি এসব কাজের মূল্যায়ণ করে তাদের সেবা করার সুযোগ দিবেন।

এদিকে আরেক প্রার্থী স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা ফারুক আহমেদও মেয়র পদে  তার জয়ের ব্যাপারে শতভাগ নিশ্চিত বলে জানান। তবে এই চার প্রার্থীই পৌরসভা নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে বলে কালের কণ্ঠের কাছে অভিমত প্রকাশ করেছেন।

উল্লেখ্য, এবারই প্রথম ইভিএম পদ্ধতিতে নবীনগর পৌরসভা নির্বাচনে ৩৬ হাজার সাতশ ৬৪ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।


এই নিউজ মোট   1452    বার পড়া হয়েছে


নির্বাচন



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.