09:31pm  Wednesday, 22 Jan 2020 || 
   
শিরোনাম
 »  গোবিন্দগঞ্জের ফুলবাড়ীতেমুজিব বর্ষ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত     »  নদী ভাঙ্গনরোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ ও অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধের দাবিতে কামারজানীতে কমিউনিস্ট পার্টির বিক্ষোভ সমাবেশ     »  পানগুছি নদীতে ৫ লক্ষ পার্শে পোনা জব্দ, আটক ১০ জেলে     »  জনকণ্ঠের সহ-সম্পাদক রেজা নওফেলের উপর সন্ত্রাসী হামলা : প্রতিবাদে বিক্ষোভ, মানব-বন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান      »  ঘনো কুয়াশার ঢেকে গেছে গাইবান্ধার পুরো এলাকায় শীতে কনকনে ঠান্ডায় কাহিল জনো জীবন      »  গাইবান্ধায় সহকারী শিক্ষকের স্ত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগে প্রধান শিক্ষককে আটক করে থানায় সোপর্দ্দ     »  ঢাকাকে বাঁচাতে সংসদীয় পদ ছেড়ে নির্বাচনে নেমেছি     »  কাশিয়ানীতে সরকারি খাল ভরাটের অভিযোগ বালু ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে     »  গোপালগঞ্জে সাংবাদিকের মটর সাইকেল চুরি     »  গোপালগঞ্জে ইউএসএআইডির নাম ভাঙ্গিয়ে প্রতারনার অভিযোগে নির্বাহী পরিচালক আটক   



ডিজিটাল ভোট কারচুপির জন্য দুই সিটিতে ইভিএম
১২ জানুয়ারি ২০২০, ২৮ পৌষ ১৪২৬, ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১



রবিবার নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ইভিএম এখন ইসির কাছে মধু। অর্থ লুটপাটের বিনিময়ে তারা সরকারকে ডিজিটাল কারচুপির মাধ্যমে জনপ্রতিনিধি উপহার দিবেন। একারণে সব মতামতকে থোড়াই কেয়ার করে নুরুল হুদার কমিশন ইভিএমে ভোট করতে চান। ইভিএমের মাধ্যমে নির্বাচনের পথ থেকে এখনই সরে আসুন। অন্যথায় পদত্যাগ করুন।

তিনি বলেন, আমরা নিশ্চিত হয়েছি যে, এই নির্বাচন কমিশন ইভিএমের মাধ্যমে এবার ডিজিটাল ভোট ডাকাতির আয়োজন করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ভোট কেন্দ্র আড়াই হাজারের মতো। ভোটকক্ষ প্রায় ১৪ হাজার। প্রতিটি কক্ষে তারা একটি করে ইভিএম ব্যবহার করতে চায়। সেই হিসেবে ১৪ হাজার ইভিএমের প্রয়োজন পড়ে।

রিজভী বলেন, গত ২৯ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশনের জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের (এনআইডি) মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, নির্বাচনে ৩৫ হাজার ইভিএম ব্যবহার করা হবে। অতিরিক্ত ২১ হাজার ইভিএম কোথায় ব্যবহার করা হবে? ইসির বক্তব্য অনুযায়ী ব্যাকআপ হিসেবে ৫০ শতাংশ মেশিন যদি রাখাও হয় তাহলে প্রতি কক্ষের জন্য অতিরিক্তসহ মোট ২১ হাজার ইভিএম লাগার কথা। কিন্তু দেখা যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন আরও ১৪ হাজার ইভিএম অতিরিক্ত প্রস্তুত করে রাখছে। এটি রাখার মূল উদ্দেশ্য হলো ভোটের আগেই ভোটের ফলাফল প্রস্তুত করা। এটি সম্পূর্ণরূপে রহস্যজনক।

তিনি আরও বলেন, যেখানে জনগণের ভোটের সরকার থাকে না, সেখানে দুর্বৃত্তদেরই জয়জয়কার থাকে। সংশ্লিষ্ট সকলের আপত্তি সত্ত্বেও ঢাকা সিটি নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারে নির্বাচন কমিশনের তোড়জোড় বেপরোয়া দুর্বৃত্তপনারই বর্ধিত প্রকাশ। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও তাদের বশংবদরা বাদে দেশের নিবন্ধিত প্রায় সকল রাজনৈতিক দলের ঘোরতর আপত্তি সত্ত্বেও জনগণকে ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত এবং অর্থ হরিলুটের জন্য ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন দিয়ে ভোট করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে বর্তমান নির্বাচন কমিশন।

এই নিউজ মোট   49    বার পড়া হয়েছে


রাজনীতি



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.