07:45am  Saturday, 06 Jun 2020 || 
   
শিরোনাম
 »  মসজিদের ইমামকে জুতার মালা পড়িয়ে ঘোরালেন ইউপি চেয়ারম্যান     »  করোনা রোগী না হলেও লাশ আঞ্জুমান মফিদুলে হস্তান্তর করবে মুগদা জেনারেল হাসপাতাল      »  খুব দ্রুত নিয়োগ হবে ৩ হাজার মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট      »  ‘করোনা ট্রেসার বিডি’ অ্যাপ চালু করল বাংলাদেশ     »  উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান সেরাদের মধ্যে ৫-এ মুশফিক     »  শিবগঞ্জে বজ্রপাতে নারীর মৃত্যু     »  শিবগঞ্জে ৮১ হাজার অসহায় ও দু:স্থ পরিবার পেল করোনা ভাইরাস উপলক্ষে সহায়তা     »  সোনামসজিদ বন্দরে আমদানি-রপ্তানি শুরু     »  সমালোচনার মধ্যেও এলাকায় নিবেদিত সেরা ১০ জনপ্রতিনিধি     »  পুলিশি নিপীড়নে মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্র বিক্ষোভে সমর্থন দিল ট্রাম্প কন্যা   



করোনার টেস্ট কিট উদ্ভাবন করে ভারতকে পথ দেখালেন দাখেভে ভোঁসলে
২৯ মার্চ ২০২০, রবিবার, ১৫ চৈত্র ১৪২৬, ৩ শাবান ১৪৪১



নভেল করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ভারতের লড়াইকে সহজ করে দিলেন ভাইরাস বিশেষজ্ঞ এক নারী। তার নাম মিনাল দাখেভে ভোঁসলে। তার নেতৃত্বে উদ্ভাবন হয়েছে করোনা পরীক্ষা কিট। করোনা মহামারিতে লকডাউন ভারতের কোনো চিকিৎসা বিজ্ঞানীর নেতৃত্বে এ ধরনের প্রথম সাফল্য এটি। এ কিটে সম্পূর্ণ নির্ভুল ফল পাওয়া যাচ্ছে। বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সাফল্যের গল্প শুনিয়েছেন দাখেভে ভোঁসলে।

মিনাল মহারাষ্ট্রের পুনের মাইল্যাব ডিসকভারির গবেষণা ও উন্নয়ন প্রধান। তিনি ভাইরাস বিশেষজ্ঞ। কীভাবে তিনি ও তার দল এ কিট উৎপাদনে সাফল্য পেলেন, এর বিবরণ উঠে এসেছে মিনালের মুখে। তিনি জানান, এমন কিট বানাতে সাধারণত তিন থেকে চার মাস সময় লেগে যায়। তবে দ্রুততম সময়ে কিট উদ্ভাবনের রেকর্ড গড়েছেন তারা। তাদের কিট তৈরিতে সময় লেগেছে মাত্র দেড় মাস। মিনালের দিক থেকে এ তাড়ার পেছনে ব্যক্তিগত একটি কারণও ছিল। তিনি ছিলেন অন্তঃসত্ত্বা। এ মাসেই ছিল তার সন্তান জন্ম দেওয়ার তারিখ। তিনি চাইছিলেন সন্তান জন্ম দেওয়ার আগেই কাজটি শেষ করতে। শেষ পর্যন্ত তার ইচ্ছা পূরণ হয়েছে। উদ্ভাবন করেছেন করোনার টেস্ট কিট। আর এ কিটের মাধ্যমে করোনাযুদ্ধে ভারতকে নতুন পথ দেখালেন এই নারী।

গত ফেব্রুয়ারিতে মিনাল ও তার টিম কাজ শুরু করে। দেড় মাসের মধ্যেই সাফল্য পেয়ে গেছেন। সাফল্যের বিষয়ে মিনাল বলেন, 'একটা জরুরি পরিস্থিতি এলো। এ সময়ে আমি দেশের জন্য কিছু করার একটি চ্যালেঞ্জ নিলাম। এ সাফল্য পেতে আমাদের ১০ জনের দলটি কঠোর পরিশ্রম করেছে।' ১৮ মার্চ মিনাল কিটটি পর্যালোচনা করার জন্য ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজিতে (এনআইভি) জমা দেন। পরদিন খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন এবং ওষুধ নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের কাছে বাণিজ্যিক অনুমোদনের জন্য লিখিত প্রস্তাব পাঠান তিনি। পরে ওই দিন সন্ধ্যায় তিনি হাসপাতালে যান। সেখানে অস্ত্রোপচারে তার কন্যাসন্তান হয়। যে কিটের জন্য মিনালের এতটা পরিশ্রম, এরই মধ্যে সেটি দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কাছে পৌঁছে গেছে। একই কিট করোনাভাইরাসের পরীক্ষাও শুরু হয়ে গেছে।

এই নিউজ মোট   290    বার পড়া হয়েছে


সফলতার গল্প



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.