10:14pm  Sunday, 27 Sep 2020 || 
   
শিরোনাম
 »  খাদ্য ও পুষ্টি নিরাপত্তা নিশ্চিতে কার্যকর সমন্বিত প্রকল্প গ্রহণের নির্দেশ      »  আমাদের বৈদেশিক নীতি ‘সকলের সাথে বন্ধুত্ব, কারও প্রতি বিদ্বেষ নয়’।     »  এমসি কলেজের গণধর্ষণের অন্যতম আসামি সাইফুর ও অর্জুন গ্রেফতার     »  আগেও এমন অপকর্ম-জঘন্য অপরাধ করেছে ছাত্রলীগ     »  এমসি কলেজে গণধর্ষণের ঘটনায় সরকারের অবস্থান অত্যন্ত কঠোর     »  শেখ হাসিনার জম্মদিনে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাল ভারত ও চীন     »  এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে গণধর্ষণে জড়িত ২ জন ফেসবুকে যা লিখলেন     »  দেশে ৩২ জনসহ করোনায় মৃত্যু ৫১৬১ জন, শনাক্ত ১২৭৫ জনসহ আক্রান্ত ৩৫৯১৪৮ জন     »  প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক পরিষদের প্রস্তুতি সভা      »  ২৭ সেপ্টেম্বর; আজকের দিনে জন্ম-মৃত্যুসহ যত ঘটনা   



রোগজীবাণু ভক্ষণকারী শকুন এখন বিলুপ্তির পথে
৫ আগস্ট ২০২০, শনিবার, ২০ ভাদ্র ১৪২৭, ১৫ মহররম ১৪৪২



শিবগঞ্জ সংবাদদাতাঃ শকহনকে মৃত প্রাণীর পাশে দেখা তো দূরের কথা দুই এক দশকে মুক্ত আকাশে উড়তে প্রায় কেউ দেখেনি। প্রকৃতির ঝাড়ুদার নামে খ্যাত শকুন বাংলাদেশ এখন অতিবিপন্ন একটি প্রানি। অথচ এক সময়ে প্রায় সর্বত্রই দেখা মিলত এই বৃহদাকার এই পাখিটির।

শকুন পাখি প্রাণীর শবদেহগুলি দ্রুত খেয়ে ফেলার মাধ্যমে একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পরিবেশগত ভূমিকা পালন করে। শকুন অ্যানথ্রাক্স সহ প্রায় চল্লিশটি রোগের জীবাণু খেয়ে হজম করার সক্ষমতা রাখে।

সেভ দ্যা নেচার চাঁপাইনবাবগঞ্জ এর এক্টিভিটিস রবিউল হাসান ডলার বলেন তিন-সাড়ে তিন দশক আগে গরুর জন্য  ডাইক্লোফেনাক নামক ব্যথানাশক একটি ঔষধ প্রচলিত ছিল।এই ঔষধটা গরুকে দেয়ার পর যদি গরু মারা যায়, তাহলে সেই গরু খেলে শকুন মারা যায়।এটা ২০০৩ সালে ধরা পড়েছে এবং তার পর থেকে শকুন অধ্যুষিত দেশগুলোতে এই ঔষধ নিষিদ্ধ করা হয়েছে এবং শকুন টিকিয়ে রাখতে নানা পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের বাবুডাইং নামক এলাকা কে পাখির অভয়ারণ্য ঘোষণা করে পাখির নিরাপদ প্রজনন কেন্দ্র গড়ে তোলার জোর দাবি জানান।

রাজশাহী বিভাগীয় বন বিভাগ এর বন্যপ্রাণী পরিদর্শক জাহাঙ্গীর কবির বলেন বাংলাদেশ সরকার ও ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন নেচার।

(আই,ইই,সি,এন)এর যৌথ উদ্যোগে শকুন সংরক্ষণ ও বৃদ্ধির জন্য অ্যাকশন প্ল্যান গ্রহণ করেছে। ইতিমধ্যেই দিনাজপুরে শকুনের সেফ এন্ড রেসকিউ সেন্টার করা হয়েছে এবং বাংলাদেশের কিছু কিছু এলাকায় শকুনের অভয়ারণ্য ঘোষণা করা হয়েছে এতে করে আগামীতে আবার শকুনের বংশবিস্তার করা সম্ভব হবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার পদ্মা নদীর পাড়ে মনোহরপুর গ্রামের কৃষক মানারুল জানান আগে পদ্মা নদীতে মরা গরু ভেসে আসত এবং তা শকুন খেয়ে পরিবেশ ঠিক থাকত কিন্তু বর্তমানে মৃত গরু ভেসে আসছে ঠিকই কিন্তু এখন শুধু পচা দুর্গন্ধ। ফলে দুষিত হচেছ পরিবেশ।

মোহাঃ সফিকুল ইসলাম, শিবগঞ্জ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ  

ভোলাহাটে শিক্ষার্থীদের মাঝে সাইকেল বিতরণসহ বিভিন্ন কর্মসূচিতে জেলা প্রশাসক


এই নিউজ মোট   65    বার পড়া হয়েছে


ভিন্ন খবর



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.