02:05pm  Saturday, 20 Jul 2019 || 
   
শিরোনাম



ওষুধের চেয়ে উপবাস উত্তম



একটি নির্দিষ্ট সময়ে খাবার ও পানীয় গ্রহণ করা থেকে বিরত থাকাকেই  উপবাস বলা হয়। উপবাস শরীরের মেরামত প্রক্রিয়াকে সক্রিয় করে। পাশাপাশি এটি দেহের হরমোন ভারসাম্য পুনরুদ্ধার করতে সাহায্য করে।

পশুদের ওপর সম্পাদিত ২০১৪ সালের একটি গবেষণা থেকে জানা গেছে, উপবাস সামগ্রিক স্বাস্থ্যকে উন্নত করে থাকে। এই উপবাস রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে, ইনসুলিনের সংবেদনশীলতা স্বাভাবিক এবং প্রদাহ হ্রাস করে।

অন্তর্বর্তী বা সবিরাম উপবাস স্বাস্থ্যকে স্বাভাবিক রাখে এবং দীর্ঘস্থায়ী অসুস্থতায় ঝুঁকি কমায়।


সবিরাম উপবাস কি?

এ ধরনের উপবাস করতে হয় একটানা ১৬ ঘণ্টা। খাবার গ্রহণ করতে হবে আট ঘন্টা পর। আপনাকে দুপুর এবং রাত ৮ টার মধ্যে খাবার খেতে হবে। এই সময়সূচী মেনে শুরু করুন। এতে আপনি উপবাসের অর্ধেক সময়ে ঘুমানোর মতো কোনও সমস্যায় পড়বেন না।

স্বাস্থ্য সুবিধা :

-উপবাস রোগের বাইমার্কারের উন্নয়ন ঘটায়
-ঘ্রেলিনের মাত্রার ভারসাম্য রক্ষা করে
-ফ্রি রেডিক্যাল কমায় বা প্রতিরোধ করার পাশপাশি প্রদাহ কমায়
-ট্রাইগ্লিসারাইডের মাত্রা কমায়
-স্মরণশক্তি  এবং শেখার দক্ষতা বাড়ায়
-বাড়তি এজন কমাতে সহায়তা করে

১. মস্তিষ্কের সুস্থতায় :

উপবাস মস্তিষ্কের জন্য দারুণ সুফল বয়ে আনে। এটি নিউরোজেনেসিস এবং নিউরোনাল স্থিতিস্থাপকতা উন্নত করে। উপবাসে নিউরোনাল পাথওয়ে সুরক্ষিত থাকে। এর ফলে মস্তিষ্ক নিজেই মেরামত করতে সক্ষম হয়।

২. ওজন হ্রাসে :

উপবাস করার সময় আপনার শরীর চর্বি পোড়ায় এবং এটি পুনরুদ্ধার করতে যথেষ্ট সময় পেয়ে থাকে। এই পদ্ধতিটি দেহের চর্বিকে দ্রবীভূত করে এবং আপনার সামগ্রিক ডায়েটের কোনও পরিবর্তন ছাড়াই পেশীর ভরকে বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে।

৩. দীর্ঘায়ু লাভ :

শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা ১৯৪৫ সালে ইঁদুরের ওপর গবেষণায় চালান। ওই গবেষণায় তারা জানতে পারেন যে, অন্তর্বর্তীকালীন উপবাস ইঁদুরকে আরও বেশি সময় বেঁচে থাকতে সহায়তা করে। এটি রোগের কারণে সৃষ্ট জটিলতা কমিয়ে দেয়।

আরেকটি গবেষণায় দেখা গেছে যে, অন্তর্বর্তীকালীন উপবাসের কারণে 'অটোফেজি' প্রক্রিয়া উন্নত হয়। এর ফলে আলঝেইমার এবং পারকিনসনের সাথে সম্পর্কিত ক্ষতিকারক বিষয়গুলোর ঝুঁকি কমে যায়। যেমন, পেশি ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা হ্রাস পায়।

৪ ক্যান্সার প্রতিরোধে :

উপবাসের কারণে ক্যান্সার কোষের বৃদ্ধি বাধাগ্রস্ত হয়। অর্ন্তবর্তী উপবাসে ক্যান্সার রোগীদের উপসর্গগুলো উপশম হয়। এটি ক্যান্সারের ওষুধের (কেমো ড্রাগস) সহনশীলতা বৃদ্ধি করে। এতে মৃত্যুঝুঁকি হ্রাস এবং নিরাময় হার বেড়ে যায়।

সূত্র : হেলথ ফুড হাউস

এই নিউজ মোট   432    বার পড়া হয়েছে


লাইফ স্টাইল



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.