02:08pm  Saturday, 20 Jul 2019 || 
   
শিরোনাম



মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের উদ্বোধন, ৭১ সালের সেই রাজাকারদের তালিকা প্রকাশ করা হবে



গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মো: আ.ক.ম. মোজাম্মেল হক বলেছেন, ৭১ সালে যারা এদেশে গণহত্যা, লুণ্ঠন, নারী নির্যাতনসহ নানা অপরাধের সাথে জড়িত ছিল। সেই রাজাকারদের তালিকা প্রকাশ করা হবে। তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, জেলা পরিষদসহ সকল মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে ওই রাজাকারদের তালিকা দেয়া হবে। তিনি বলেন, জাতির সূর্য সৈনিক বীরশ্রেষ্ঠ সন্তানদের যারা  নির্মমভাবে হত্যা করেছে তাদের  বিচারের রায় কার্যকর করে দেশকে কল্ঙ্কমুক্ত করা হয়েছে। বুধবার পলাশবাড়িতে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের ভবন উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন।


অনুষ্ঠানে মন্ত্রী আরও বলেন, আগামী ২০২০ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্ম বার্ষিকী মুজিব দিবস পালন করা হবে। এই দিবস উপলক্ষে ৬৪টি জেলায় অসচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ১৬ হাজার ঘরবাড়ি নির্মান করে দেয়া হবে।

মন্ত্রী বলেন, রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণই বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের ঘোষণা। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে এদেশ স্বাধীন হতো না। তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ উন্নয়নে এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, চলতি অর্থবছর থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়ানো হয়েছে। একই সাথে প্রতি বছর বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিজয় ও স্বাধীনতা দিবস এবং বৈশাখী ভাতা দেয়া হবে।


মন্ত্রী মোজাম্মেল হক বলেন, গাইবান্ধার পলাশবাড়ি উপজেলা সদরে সাদুল্যাপুর, সুন্দরগঞ্জ, গোবিন্দগঞ্জ ও পলাশবাড়ি মুক্তিযোদ্ধা কমল্পেক্স ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জাতীয়পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী, পুলিশ সুপার মো. আবদুল মান্নান মিয়া, জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য সাবেক এমপি তোফাজ্জল হোসেন সরকার, পলাশবাড়ী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান একেএম মোকছেদ চৌধুরী বিদ্যুৎ, সাদুল্যাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খান বিপ্লব, পলাশবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবু বকর প্রধান, সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ শামিকুল ইসলাম সরকার লিপন, সহ-সভাপতি শহিদুল ইসলাম বাদশা, সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ আহবায়ক টিআইএম মকবুল হোসেন, সাংবাদিক নুরুজ্জামান প্রধান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার গৌতম চন্দ্র মোদক, পলাশবাড়ী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আব্দুর রহমান, সদরের আলী আকবর, সাদুল্যাপুরের মেছের উদ্দিন, গোবিন্দগঞ্জের নুরুল ইসলাম আজাদ ও সুন্দরগঞ্জের এমদাদুল হক বাবলু প্রমুখ।

এলজিইডি’র তত্ত্বাবধানে প্রতিটি উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মাণে প্রায় সোয়া ২ কোটি টাকা ব্যয় হয়েছে। ওই অনুষ্ঠানে পৃথকভাবে ৪টি উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের ভবনের উদ্বোধন করা হয়।

ফারুক হোসেন
গাইবান্ধা

এই নিউজ মোট   6468    বার পড়া হয়েছে


মুক্তিযুদ্ধ



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.