10:12am  Monday, 18 Nov 2019 || 
   
শিরোনাম
 »  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মওলানা ভাসানীর ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত     »  দৃষ্টি কাড়তে আমির-কন্যার ফটোশুট     »  প্রথম পুরস্কার দুই কেজি দেশি, দ্বিতীয় দুই কেজি ভারতীয়, তৃতীয় দুই কেজি পাকিস্তানি পিয়াজ!     »  দিনাজপুরে বাজারে নতুন পাতা পিয়াজ     »  ধেয়ে আসছে বুলবুলের চেয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় নাকরি     »  আমাকে নির্যাতন করা হয়েছে খেতেও দেওয়া হত না     »  অফিসে বসে বাবা দেখছিলেন- অমানবিক? লোমহর্ষক? বীভৎস নির্যাতন?     »  সাবিলা নূর মধুচন্দ্রিমায় সময় কাটাচ্ছেন!     »  ১০ বছর বয়সী খেলার সঙ্গী পাঁচ বছরের শিশুকে গলা কেটে হত্যা     »  নতুন পরিবহন আইনের উদ্দেশ্য সড়কে শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠা, জরিমানা নয়!   



ঈশ্বরগঞ্জে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় ওড়না ধরে টানাহেঁচড়া



ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাতে মামলাটি দায়ের করেন ওই পরীক্ষার্থীর মা। প্রতিবাদ করায় প্রকাশ্যে ওড়না ধরে টানাহেঁচড়া করায় ছাত্রীটি অসুস্থ হয়ে শয্যা নিয়েছে। কোনো কিছু ঘটার আশঙ্কায় পরিবারের লোকজন পাহাড়া দিচ্ছে।

মামলায় অভিযুক্ত করা হয়েছে ঈশ্বরগঞ্জ পৌরসভার ধামদী মহল্লার মো. শামছুল্লাহ ওরফে নাণ্টুর ছেলে মো. ইমরান হাসান সিজানকে।

স্থানীয় লোকজন সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্ত সিজান ঈশ্বরগঞ্জ পৌরসভা ছাত্রলীগের একজন কর্মী। বর্তমানে তিনি বিবাহিত ও সংগঠনের নেতৃত্বে নেই। এ ঘটনায় সিজানের বাবা নান্টু জানান, তার ছেলে ওই ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করেনি। অযথা অপবাদ দিয়ে মিথ্যা মামলা করেছে।

তাহলে শালিস হয়েছে কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, সিজান না কি ওই মেয়ের বিয়ের প্রস্তাবে কুটনামি করেছে এই জন্য শালিস হয়েছে। তবে সালিসে প্রমাণ হয়নি বলে তিনি দাবি করেন।

ছাত্রীর মা জানান, ইমরানের কারণে তার মেয়েটির জীবন তছনছ হতে চলেছে। অথচ তার মেয়ে পড়াশুনা ও খেলাধুলায় সমান পারদর্শী। ইমরানের উত্ত্যক্তের হাত থেকে মেয়েকে রক্ষা করার জন্য তিনি তাকে নিয়ে ঢাকায় চলে যান। ওই সময় ঠিকমতো পড়াশুনা করতে না পারায় গত এসএসসি পরীক্ষায় তার মেয়ে দুই বিষয়ে অকৃতকার্য হয়। তিনি ঢাকায় থাকা অবস্থায় জানতে পারেন ইমরান বিয়ে করেছে। ফলে বিপাদের শঙ্কা কেটে গেছে মনে করে মেয়েকে নিয়ে ঈশ্বরগঞ্জে ফেরেন। কিন্তু এসেই পড়ের বিপদে। কোচিং, প্রাইভেট ও কম্পিউটার প্রশিক্ষণে যাওয়া-আসার পথে প্রতিনিয়তই উত্ত্যক্ত করে আসছে। এ অবস্থায় সালিশ দরবারে বেশ কয়েকবার তাকে (সিজান) সর্তক করে দিলেও উল্টো ক্ষিপ্ত হয়ে গুলি করে মেরে ফেলারও হুমকী দেয়।

ওই ছাত্রীর মা আরো জানান, তার মেয়ে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সামনে একটি কম্পিউটার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে শিক্ষাগ্রহণ করছিল। গত বুধবার সকালে বাসা থেকে ওই প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার পথে ইমরান তার সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে তার মেয়ের পথেরোধ করে অশালীন প্রস্তাব দেয়। পরে তার পরনের ওড়না ধরে টানাটানি শুরু করে। এ ঘটনা হতচকিত মেয়েটি বাসায় ফিরে গিয়ে মাসহ অন্য স্বজনদের জানায়। এতে মেয়েটি মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ে।

এ ব্যাপারে ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি আহম্মেদ কবির বলেন, অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশ মাঠে রয়েছে। যেকোনো সময় গ্রেপ্তার করা হবে।


এই নিউজ মোট   19    বার পড়া হয়েছে


ইভটিজিং



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.