অচিরেই সাক্কুর দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশের ঘোষণা দিলেন কুসিক মেয়র রিফাত

জনপ্রতিনিধি দুর্নীতি প্রচ্ছদ রাজনীতি হ্যালোআড্ডা

কুমিল্লা প্রতিনিধি: আওয়ামী লীগ আমলে ২০১১ সালে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) প্রতিষ্ঠা লাভ করে। এজন্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা চাইতেন নৌকার প্রার্থীই কুসিকের মেয়রের চেয়ারে বসুক। তবে কুসিকের প্রথম দুটি নির্বাচনে সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। এবার সেই অধরা স্বপ্ন ধরা দিয়েছে, ঘটেছে অপেক্ষার অবসানও।

শপথ গ্রহণের দুইদিনের মাথায় কুসিকের মেয়রের চেয়ারে বসে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব বুঝে নিয়েছেন আরফানুল হক রিফাত।

নবনির্বাচিত মেয়র বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে নগর ভবনে এসে মেয়রের দায়িত্বভার বুঝে নেন। এ সময় কুসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. শফিকুল ইসলামসহ কর্মকর্তা-কর্মচারিরা নবনির্বাচিত মেয়র আরফানুল হক রিফাত এবং কাউন্সিলরদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। এদিন দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। নিয়মানুযায়ী নবনির্বাচিত মেয়র-কাউন্সিলরদের প্রথম সভা থেকে পরবর্তী ৫ বছর হবে বর্তমান করপোরেশনের মেয়াদ।

এদিকে মেয়রের চেয়ারে বসেই আরফানুল হক রিফাত সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় তিনি বলেন, আমি সব সময় নিকেজে দুর্নীতি মুক্ত রেখে কাজ করব। আমি ভোটের আগে কুমিল্লার মানুষকে কথা দিয়েছি নির্বাচিত হলে সাবেক মেয়রের দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ করব। কুমিল্লার মানুষকে দেওয়া আমার সেই কথা আমি অবশ্যই রক্ষা করব। অচিরেই দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ করা হবে।

তিনি আরো বলেন, দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশের ক্ষেত্রে আমি নগর ভবনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বলবো- আপনারা আমাকে সহযোগিতা করুন। শ্বেতপত্র প্রকাশের জন্য যেসব কাগজপত্র দরকার সেগুলো আমাকে দেবেন। আর কেউ নিজেকে কোনো প্রকার অনিয়ম ও দুর্নীতির সাথে জড়াবেন না। অনিয়মে জড়িত কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

রিফাত আরো বলেন, কুমিল্লার মানুষ আমাকে ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করেছেন। এজন্য আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। আমি নগর পিতা নয়, শততার সঙ্গে নগর সেবক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবো। আমি কুমিল্লার মানুষকে বলেছি আপনাদের জন্য আমার সেবার দরজা সব সময় খোলা থাকবে। আমি সেই কথা রক্ষা করব। আমি সিটি করপোরেশনকে কখনোই দলীয় কার্যালয় বানাবো না।

মেয়রের প্রথম কাজ সম্পর্কে রিফাত বলেন, আমি সর্বপ্রথম কুমিল্লার মানুষকে জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি দিতে কাজ শুরু করব। এরপর যানজট সমস্যার সমাধান করব। এ ছাড়া পর্যায়ক্রমে সকল উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন করব। কুমিল্লা আধুনিক ও মডেল সিটি করপোরেশনে পরিণত করা হবে।

গত ১৫ জুন কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত জয়ী হন। গত ২৩ জুন গেজেটে মেয়রসহ নবনির্বাচিত কাউন্সিলরদের নামের তালিকা প্রকাশিত হয়। নির্বাচনের ২০ দিনের মধ্যেই গত ৫ জুলাই তাঁদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আরো পড়ুন : ১৫৩ জন নিয়োগ দিচ্ছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়

Share The News

Leave a Reply

Your email address will not be published.