আজ নয়াপল্টন থেকে বিএনপির গণমিছিল

প্রচ্ছদ রাজনীতি হ্যালোআড্ডা

বিশেষ প্রতিনিধি: রাজধানীর নয়াপল্টন থেকে আজ শুক্রবার বেলা আড়াইটায় বিএনপি গণমিছিল কর্মসূচি শুরু করবে বলে জানিয়েছেন দলটির ভাইস চেয়ারম্যান ও কর্মসূচির সমন্বয়ক এ জেড এম জাহিদ হোসেন।

কাকরাইল মোড়, শান্তিনগর, মালিবাগ মোড় হয়ে মগবাজার চৌরাস্তা গিয়ে মিছিলটি শেষ হবে। মিছিলে রাজধানীর ১৩টি স্থান থেকে যুক্ত হবেন বিএনপিসহ এর অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী ও সমর্থকেরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়াপল্টনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান এ জেড এম জাহিদ হোসেন। তিনি বলেন, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনারের কাছ থেকে তাঁরা মগবাজার পর্যন্ত গণমিছিল করার অনুমতি পেয়েছেন। তাঁরা শান্তিপূর্ণভাবে এই গণমিছিল সম্পন্ন করতে চান।

এ ছাড়া সাত–দলীয় জোট ‘গণতন্ত্র মঞ্চ’ আগামীকাল বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে, ১২–দলীয় জোট বিজয়নগর পানির ট্যাংক এলাকা থেকে, জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট পুরানা পল্টন মোড় থেকে, এলডিপি এফডিসির সামনে থেকে এবং জামায়াতে ইসলামী বায়তুল মোকাররম মসজিদের উত্তর গেট থেকে গণমিছিল করার কথা জানিয়েছে।

গণমিছিলের মূল ট্রাকে থাকবেন জ্যেষ্ঠ নেতারা

বিএনপির সূত্র জানিয়েছে, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, জমির উদ্দিন সরকার, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, শাহজাহান ওমর, হাফিজ উদ্দিন আহমেদ ও মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাত গণমিছিলে অস্থায়ী মঞ্চ ট্রাকে থাকবেন। এর সমন্বয় করবেন ভাইস চেয়ারম্যান এ জেড এম জাহিদ হোসেন।

এ ছাড়া নাইটিঙ্গেল মোড়ে মহিলা দল, এরপর ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি, ঢাকা ব্যাংকের সামনে ছাত্রদল, আনন্দ ভবনের সামনে কৃষক দল, হকস বের সামনে স্বেচ্ছাসেবক দল, ভিক্টরি হোটেলের সামনে পেশাজীবী ও মুক্তিযোদ্ধা দল, ‘কড়াই গোশত’ রেস্তোরাঁর সামনে যুবদল, চায়না টাউন মার্কেটের সামনে ঢাকা জেলা বিএনপি, জোনাকি সিনেমা হলের সামনে শ্রমিক দল, পল্টন থানার বিপরীত পাশে মৎস্যজীবী দল, তাঁতি দল ও জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস) এবং ফকিরাপুল-দৈনিক বাংলা সড়কে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপিকে থাকতে বলা হয়েছে।

সরকারের পদত্যাগ, সংসদ বাতিল, নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর এবং নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনসহ ১০ দফা দাবিতে বিএনপিসহ সমমনা ৩২টি রাজনৈতিক দলের আন্দোলনের অংশ হিসেবে ঢাকায় এ গণমিছিল করা হচ্ছে।

১০ ডিসেম্বর ঢাকার গোলাপবাগে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ থেকে এ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। ২৪ ডিসেম্বর বিএনপিসহ জোটের দলগুলো সব বিভাগীয় ও জেলা সদরে গণমিছিল করেছে। ঢাকাতেও ওই দিন গণমিছিল করার কথা ছিল। তবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সম্মেলনের কারণে ওই দিনের ঢাকার কর্মসূচি পিছিয়ে ৩০ ডিসেম্বর করা হয়।

এদিকে এক বিজ্ঞপ্তিতে জামায়াত জানিয়েছে, তারা বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেটের সামনে বেলা সাড়ে তিনটায় গণমিছিল করতে ডিএমপির কাছে আবেদন করেছে। দলটির তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল আজ বেলা ১১টায় ডিএমপি কার্যালয়ে গিয়ে আবেদন করে। প্রতিনিধিদলে ছিলেন সাইফুর রহমান, জালাল উদ্দিন ও গোলাম রহমান। তাঁরা সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও দলের দায়িত্বশীল নেতা।

আরো পড়ুন : চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ উপনির্বাচন নাচোল ও গোমস্তাপুরে সৈকত জোয়ার্দ্দারের গণসংযোগ 

Share The News

Leave a Reply

Your email address will not be published.