আমি নির্বাচিত হলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পা ছুয়ে এলাকার উন্নয়ন করব

নির্বাচন পুরুষ প্রচ্ছদ মুক্তমত রাজনীতি

বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার শূন্য দুই আসনে উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে একতারা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী মাঠে মো. আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। সোমবার দিনব্যাপী বগুড়ার বিভিন্ন এলাকায় তিনি ভোট চেয়ে গণসংযোগ করেন।

এসময় হিরো আলাম জানান, বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) ও বগুড়া-৬ (সদর) আসনে উপনির্বাচনে তার ওপর যদি কোনো প্রকার হামলা হয় তাহলে পাল্টা জবাব দেবেন।
তিনি বলেন, ‘কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা আমরা মেনে নেবো না। এবার আমাদের ওপর কেউ হামলা করলে তার পাল্টা জবাব আমরা দেব। নেতাকর্মীও বেশি রয়েছে তাই ভয়ের কিছু নেই।’

হিরো আলাম বলেন, ‘গত ২০১৮ সালের নির্বাচনে আমার ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছিল। এই নির্বাচনে আমরা অবাদ, সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন চাই। সাধারণ জনগণ যাতে তাদের ভোট প্রয়োগ করতে পারে সে বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে। আগামী ১ ফেব্রুয়ারি বগুড়াবাসী আমাকে বিপুল ভোটে জয়ী করবে বলে আমি আশা করছি। বগুড়ার মানুষ এতদিন শিল্পপতি, কোটিপতি ও বড় বড় নেতাদের এমপি নির্বাচিত করেছেন। কিন্তু বগুড়ার কোনো উন্নয়ন হয়নি। তাই বগুড়াবাসী জোট বেঁধেছে আমাকে ভোট দেওয়ার জন্য। আমি যেখানেই যাচ্ছি সেখানেই সাড়া পাচ্ছি।’

‘আমার চেহারা খারাপ, টাকা-পয়সা নেই তারপরেও ভোটাররা আমাকেই ভোট দেবে। সুন্দর চেহারা হলেই উন্নয়ন করা যায় না। মানুষকে ভালোবাসতে হয়। আর মানুষকে ভালোবাসার যোগ্যতা যার আছে সেই এলাকার উন্নয়ন করে। আমি নির্বাচিত হয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার পা ছুয়ে বলবো আপনি বগুড়ার উন্নয়নে আমাকে সহযোগিতা করেন। তিনি আমার কথা অবশ্যই শুনবেন।’

উল্লেখ্য, আশরাফুল হোসেন আলম ওরফে হিরো আলম ২০১৮ সালে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রম) আসনে ‘সিংহ’ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেছিলেন।

আরো পড়ুন : প্রমাণ করব ইভিএমের পাশাপাশি ব্যালটেও নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু করা সম্ভব

Share The News

Leave a Reply

Your email address will not be published.