কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট ও সিপিআর বিষয়ক সচেতনতা প্রশিক্ষণ

অর্থনীতি প্রচ্ছদ ব্যাংক

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড ও ইন্টারেক্টিভ প্রফেশনাল ডেভেলপমেন্ট ইনিশিয়েটিভ (আইপিডিআই) ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট ও কার্ডিওপালমোনারি রিসাসিটেশন (সিপিআর) বিষয়ক সচেতনতা ও প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়। ২৭ অক্টোবর ২০২২, বৃহস্পতিবার ইসলামী ব্যাংক টাওয়ারে প্রধান অতিথি হিসেবে প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ কার্ডিয়াক সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ডাঃ আব্দুল্লাহ আল শাফি মজুমদার। ব্যাংকের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ও সিইও মুহাম্মদ মুনিরুল মওলার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইপিডিআই ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক ডাঃ মুহসিন আহমেদ, ব্যাংকের অ্যাডিশনাল ম্যানেজিং ডাইরেক্টর মুহাম্মদ কায়সার আলী, মোঃ ওমর ফারুক খান ও জে. কিউ. এম. হাবিবুল্লাহ, এফসিএস। ট্রেনিং সেশন পরিচালনা করেন এভারকেয়ার হাসপাতালের ডাঃ আসিফ জামান তুষার। প্রশিক্ষণে ব্যাংকের উর্ধ্বতন নির্বাহী ও কর্মকর্তাগণ অংশগ্রহণ করেন।

প্রধান অতিথির ভাষণে প্রফেসর ডাঃ আব্দুল্লাহ আল শাফি মজুমদার বলেন, কার্ডিয়াক অ্যারেস্টে আক্রান্ত ব্যক্তিকে মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচানোর অন্যতম মাধ্যম হলো সিপিআর। কোন ধরনের ডাক্তারি বিদ্যা ছাড়াই যে কোনো মানুষের পক্ষে সিপিআর পদ্ধতি শেখা সম্ভব। সারাবিশ্বের অসখ্য মানুষ এ রোগে আক্রানÍ হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। একটু সচেতন হলেই সিপিআর-এর মাধ্যমে কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট আক্রান্ত ব্যক্তিকে বাঁচানো সম্ভব। তাই সবার উচিত এই বিষয়টি নিয়ে নূন্যতম জ্ঞান রাখা।

সভাপতির বক্তব্যে মুহাম্মদ মুনিরুল মওলা বলেন, হার্ট মানুষের অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। যেকোন সময় আমরা যে কেউ এই রোগে আক্রান্ত হতে পারি। এই রোগটি কখন কীভাবে হবে সেটি আমরা কেউ জানি না। তাই এই রোগের বিষয়ে পূর্ব সর্তকতা অবলম্বন করাটা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ডাক্তারের কাছে পৌঁছানোর আগে প্রাথমিক চিকিৎসা নেওয়ার এই সিপিআর পদ্ধতি আমাদের সবাইকে আরো বেশি সচেতন হতে সহায়তা করবে। ইসলামী ব্যাংকের সাথে এমন উদ্যোগ নেওয়ায় আইপিডিআই- এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

আরো পড়ুন : দ্রুত তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সংশোধন করতে হবে

Share The News

Leave a Reply

Your email address will not be published.