দুই মাসের বেশি হলো স্কুলছাত্রী তুলির সন্ধান কেউ দিতে পারল না

জনদুর্ভোগ জাতীয় নারী নারী অন্যান্য প্রচ্ছদ শিক্ষা শিশু অধিকার শিশু/কিশোর হ্যালোআড্ডা

পাবনা প্রতিনিধি: নিখোঁজের দুই মাসেও সন্ধান মেলেনি স্কুলছাত্রী তুলি রানী সাহার (১২)। নিখোঁজ তুলি রানী সাহা পাবনা সাঁথিয়া উপজেলার কাশিনাথপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামের উদয় সাহার মেয়ে।

সে কাশিনাথপুর অরবিট একাডেমীর ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। মেয়ের নিখোঁজের বিষয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন তুলির বাবা।

সাধারণ ডায়েরি সূত্রে জানা গেছে, গত ১৭ অক্টোবর সকাল ৮টার দিকে তুলি রানী সাহা তার অরবিট একাডেমীতে যাওয়ার উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর স্কুলে গিয়ে সব ক্লাস করে। কিন্তু বাড়ি ফেরার সময় পার হয়ে গেলেও সে আর বাড়িতে ফেরেনি। পরিবারের স্বজনরা স্কুলের আশপাশ, আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে খোঁজ করে কোথাও তার সন্ধান পায়নি। পরদিন ১৮ অক্টোবর মেয়ের নিখোঁজের বিষয়ে সাঁথিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন তার বাবা উদয় সাহা।

নিখোঁজ তুলি রানী সাহার বাবা উদয় সাহা বলেন, সকাল ৮টায় মেয়ে বাড়ি থেকে স্কুলে যায়। ক্লাস শেষে দুপুর সাড়ে ১২টার মধ্যে বাড়িতে চলে আসে। ওইদিন বাড়ি না আসায় অনেক খোঁজাখুঁজি করি। কিন্তু পাই না। পরে থানায় জিডি করেছি। মেয়ের ছবিসহ সব তথ্য দিয়েছি। কিন্তু দুই মাসের বেশি হলো আমার মেয়ের সন্ধান কেউ দিতে পারল না।

উদয় সাহা বলেন, কেউ অপহরণ করলে তো মুক্তিপণের জন্য ফোন দিত। এ পর্যন্ত কেউ ফোনও দেয়নি। আমার মেয়েটা কোথায় হারিয়ে গেল। ভাগ্যে যে কি আছে, কি হবে, কিচ্ছু বুঝতে পারছি না। আমাদের এখন পাগল হওয়া বাকি।

এ বিষয়ে সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা আমাদের সর্বোচ্চটুকু দিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধারের চেষ্টা করছি। কিন্তু কোনো কুলকিনারা এখনো করতে পারিনি। পরিবারের দেওয়া তথ্য মতে বিভিন্ন জায়গা থেকে সন্দেহভাজন লোক ধরে নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ করে বের করার চেষ্টা করেছি। কিন্তু কিছু পাইনি।

এর আগে একটি ছেলের সঙ্গে মেয়েটির সম্পর্ক ছিল, তাকেও ধরে এনেছিলাম। তার কাছ থেকে তেমন কোনো তথ্য বা মেয়েটির সন্ধান পাওয়া যায়নি। তারপরও আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

আরো পড়ুন : বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৬৮ হাজার শিক্ষক নিয়োগের গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

Share The News

Leave a Reply

Your email address will not be published.