পঞ্চমবারের মতো শুরু হলো ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ’

টেলিভিশন প্রচ্ছদ বিনোদন বিনোদন অন্যান্য শিল্প-সাহিত্য

বাংলাভাষা ও সংস্কৃতিচর্চায় নতুন প্রজন্মকেউদ্বুদ্ধ করতে আবারও শুরু হলো ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ’ বাংলাভাষা ও সংস্কৃতি চর্চায় নতুন প্রজন্মকে উদ্বুদ্ধকরতে পঞ্চমবারের মতো শুরু হলো দেশের সবচেয়ে বড় টিভি রিয়্যালিটি শো ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ’। ‘বাংলায় জাগো ভরপুর’এ স্লোগানকে সামনে রেখে শুদ্ধ বাংলা র্চ্চাকে নতুন প্রজন্মেও কাছে আরো ছড়িয়ে দেবার প্রত্যয়ে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় চায়ের ব্র্যান্ড ‘ইস্পাহানিমির্জাপুর’এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করছে ২০১৭ সাল থেকে। উলে­খ্য, দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় ২০২০ সালে চতুর্থ বর্ষেও আয়োজন শুরু করেও শেষ করা যায়নি। করোনা মহামারির ক্রান্তিকাল শেষে দেশব্যাপী শিশু-কিশোর ও অভিভাবকদের বিপুল আগ্রহ বিবেচনা করে ইস্পাহানি টি লিমিটেড আবারও ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

নতুন প্রজন্মের কাছে শুদ্ধ বাংলা, বানান ও ব্যবহার ছড়িয়ে দিতে ও বাংলা সংস্কৃতির চর্চায় উদ্বুদ্ধ করতে ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর’ বাংলা নিয়ে এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে। প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বর্ষের পর্বগুলো দেশ ও দেশের বাইরে থাকা বাংলা ভাষাভাষীদের মধ্যে ব্যাপকভাবে সমাদৃত হয়েছিলো। এ প্রতিযোগিতায় শুদ্ধ বাংলা ভাষার ব্যবহার, বানানচর্চা, শুদ্ধ উচ্চারণ ও ব্যাকরণের সঠিক প্রয়োগের মাধ্যমে ভিন্ন ভিন্ন পর্যায় শেষে চূড়ান্ত বিজয়ী নির্ধারণ করা হয়। দেশসেরা বাংলাবিদ জিতে নেয় ১০ লক্ষ টাকার মেধাবৃত্তি। উলে­খ্য, ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ’ প্রথম বর্ষের প্রতিযোগিতায় সেরা বাংলাবিদের পুরস্কার জিতে নিয়েছিলো রাজধানী ঢাকার ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থী নুসরাত সায়েম, দ্বিতীয় বর্ষের সেরা বাংলাবিদের পুরস্কার জিতে নিয়েছিলো চট্টগ্রামের ডা. খাস্তগীর সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী দেবস্মিতা সাহা এবং তৃতীয় বর্ষের সেরা বাংলাবিদ হয়েছিলো বগুড়া ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থী পি কে এম শাজেদুর রহমান শাহেদ।

ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ-এর পঞ্চম বর্ষের আয়োজনে বড় হচ্ছে স্টুডিওর আয়তন আর যুক্ত হবে নতুন নতুন খেলা। উলে­খ্য, ২০২০ এর ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদেও আয়োজনে নিবন্ধন ছিলো লক্ষাধিক, যার মাধ্যমে ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ’ পরিণত হয়েছে নিবন্ধনের দিক থেকে দেশের সবচেয়ে বড় টিভি রিয়্যালিটি শো’তে।
এ প্রতিযোগিতার উদ্দেশ্য হচ্ছে ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্য থেকে মেধা ও মননের শ্রেষ্ঠ ব্লেন্ডের বা মিশেলের মানুষদের খুঁজে বের করা যারা বাংলা ভাষা, বানান এবং বাংলা শব্দের ব্যবহাওে দক্ষতা দেখাতে পারবে। মেধা ও মনন ভিত্তিক ভিন্ন ভিন্ন বাছাই প্রক্রিয়া পার হয়ে যারা সত্যিকার ভাষা লড়াকু হতে চায় তাদের নিবন্ধন করার জন্যে আহ্বান করা হচ্ছে। উলে­খ্য, ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ’-এর পঞ্চম বর্ষেও চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় শীর্ষস্থান অধিকারী প্রতিযোগী পাবে ১০লক্ষ টাকার মেধা বৃত্তি এবং দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী পাবে যথাক্রমে ৩লক্ষ টাকা ও ২লক্ষ টাকার মেধাবৃত্তি। এছাড়াও প্রথম দশ জন প্রতিযোগী পাবে ১টিল্যাপটপসহ ব্যক্তিগত লাইব্রেরি করার জন্যে ৫০ হাজার টাকা সমমূল্যের বাংলা বই ও বইয়ের আলমারি।

আরো পড়ুন : হাতকড়া আর ডাণ্ডাবেড়ি নিয়ে মায়ের জানাজা পড়ালেন আলী আজম

 

Share The News

Leave a Reply

Your email address will not be published.