ভোলাহাটে রাস্তা দখল করায় পারাপারে পথচারীদের দূর্ভোগ চরমে

জনদুর্ভোগ জাতীয় প্রচ্ছদ

ভোলাহাট (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ মাত্র ৫টি পরিবারের কাছে জিম্মি একটি গ্রামের সহস্রাধীক মানুষ। আড়াই’শ ভুক্তভুগী মানুষের লিখিত অভিযোগে জানা যায়, ভোলাহাট উপজেলার ৪নং জামবাড়ীয়া ইউনিয়নের কালিনগর গ্রামের ১০ ফিট প্রস্থ একটি মাত্র কার্পেটিং রাস্তা দিয়ে বিভিন্ন প্রয়োজনে যাতায়াত করে থাকেন ঐ গ্রামের সহস্রাধীক মানুষ। কিন্তু মৃত্যু গুদুস্তির ছেলে মোঃ সালেক, মৃত্যু আকিমুদ্দিনের ছেলে মোঃজেকের , মোঃতালেপ, মোঃচুটু, মোঃনাজিরের ছেলে মোঃইসমাইল রাস্তাটির দু’পাশে নালা করে বাড়ীর পানি বের করা, গর্ত করে গবর সংরক্ষণ করা, গরু বেঁধে রাখা, খড়ি সংরক্ষণসহ নিজস্ব সম্পত্তির মত দখল করে ব্যবহার করে আসছেন গত ১৪/১৫ বছর ধরে। এতে করে গ্রামবাসীসহ অন্য পথচারিদের রাস্তা পারাপারে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। দখলদারদের কিছু বলতে গেলে হামলার শিকার হতে হয় পথচারিদের। লিখিত অভিযোগে আরো জানা যায়, এ ৫পরিবার সরকারি নিয়মনীতিকে তোয়াক্কা না করে দৈ তৈরীর কারখানা করায় তাঁদের নিজস্ব ভ্যান রাস্তার উপর দাঁড় করিয়ে মালামাল উঠানামা করে। তাঁদের এ সব দখলদারিত্বে রাস্তা দিয়ে একটি ভ্যান পারাপারের সময় একজন পথচারীও পারাপার হতে পারে না।

অভিযোগের ভিত্তিতে সরজমিনে গিয়ে মোঃ সালেককে বাড়ীর পানি নিষ্কাশনের জন্য রাস্তার পাশে গর্ত খুঁড়তে দেখা যায়। তিনি বাড়ীর পানি নিষ্কাশনের জন্য গর্ত করছেন বলে স্বীকার করেন।

অপরজন মোঃ জেকের রাস্তা দখল করে আম গাছের খড়ি স্তুপ করে চিরাই করতে দেখা যায়। তিনি রাস্তার পাশে খড়ি রাখে পরে সরিয়ে নেন বলে জানান। এদিকে তাঁদের অত্যাচারে রাস্তা দিয়ে একটি ভ্যান গেলে একজন মানুষ পারাপার হয় না।

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আফাজ উদ্দিন পানু মিয়া জানান, এ ঘটনায় ভুক্তভোগী গ্রামবাসী প্রতিকার চেয়ে একটি অভিযোগ করেছেন। আমি সরজমিনে গিয়ে নিষেধ করলে তাঁরা কোন কথাই শুনেনি। তাঁদের নোটিশ দিয়ে পরিষদের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান। তিনি আরো বলেন, আমাকে অমান্য করলে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গোলাম কবির- ভোলাহাট (চাঁপাইনবাবগঞ্জ)

আরো পড়ুন : মৃত্যু না থাকলেও ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ২১২ জন শনাক্ত

Share The News

Leave a Reply

Your email address will not be published.