11:58pm  Saturday, 31 Jul 2021 || 
   
শিরোনাম
 »  দেশে ২১৮ জনসহ করোনায় মৃত্যু ২০৬৮৫, শনাক্ত ৯৩৬৯ জনসহ আক্রান্ত ১২৪৯৪৮৪ জন     »  ‘ফ্রি ফায়ার’ খেলাকে কেন্দ্র করে চুয়াডাঙ্গায় বাবা নিহত ছেলে আহত     »  ১৯৭১ এর ৩১ জুলাই কামালপুর সীমান্ত ঘাঁটিতে ভয়াবহ যুদ্ধ     »  আজ সিনহা হত্যার ১ বছর; সিনহার মৃত্যুর পর 'বন্দুকযুদ্ধের' ঘটনা কমেছে     »  পাত্তা দিচ্ছে না এডিস; নিজ নিজ জায়গা পরিস্কার রাখতে হবে নাগরিকদের     »  স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে পরিপালন করবে প্রতিটি পোশাক কারখানা     »  ঢাকার পথে জাপানের দেওয়া অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার দ্বিতীয় চালান      »  আজ ৩০ জুলাই; আজকের দিনে জন্ম-মৃত্যুসহ যত ঘটনা     »  মারা গেছেন সাংসদ আলী আশরাফ      »  র‌্যাব গুলশান থানায় হস্তান্তর করল হেলেনা জাহাঙ্গীরকে   



আমি ব্যবসায়িক প্রতিপক্ষের ষড়যন্ত্রের শিকার : আলহাজ্ব এরশাদ আলী
১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, শনিবার, ২৯ মাঘ ১৪২৭, ২৯ রবিউস সানি ১৪৪২



সম্প্রতি তিনটি সংবাদ মাধ্যমে এরশাদ গ্রপের বিরুদ্ধে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন এরশাদ গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এরশাদ আলী। আজ শনিবার সকাল সাড়ে ১১ টায় ক্রাইম রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে তিনি ব্যবসায়িক ষড়যন্ত্রের শিকার বলে অভিযোগ করেন। এ সময় তিনি বলেন- এ.বি. ব্যাংকের ডিএমডি ও একটি কুচক্রীমহল আমার বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের দিয়ে মিথ্যা, ভূয়া, ভিত্তিহীন এবং বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করে আমার প্রায় হাজার কোটি টাকার অধিক মানহানি ও ব্যবসায়িক ক্ষতি সাধন করেছে।

তিনি আরো বলেন, আজকের সম্মেলন সরকার, কোন সংস্থা, কোন গণমাধ্যম বা সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে নয়। আজকের সম্মেলন শুধুমাত্র কতিপয় লোভী এবং নিন্দুক ব্যাক্তি বিশেষের বিরুদ্ধে। আর অপরাধ মূলক কর্মকান্ডের মাধ্যমে আমার ও আমার কোম্পানির অপুরনীয় ক্ষতির বিষয়টির ব্যাপারে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা ও সত্য প্রকাশের জন্যই আপনাদের বস্তুনিষ্ঠ এবং তথ্য সংগ্রহের মাধ্যমে আপনারা আপনাদের জাতির বিবেক দিয়ে পবিত্র কলমের কালির লিখনির মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট দপ্তর সমুহ ও জাতিকে জানানোর জন্যই আজকের এই সম্মেলনের মূল উদ্দেশ্য।

সত্য প্রকাশের স্বার্থে প্রকাশিত সংবাদের বিরুদ্ধে “এরশাদ গ্রুপ” এর ব্যাখ্যা

আপনাদের সদয় অবগতির জন্য জানানো যাচেছ যে, গত ৩১ জানুয়ারি ২০২১ ইং এবং ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ইং তারিখে “রিকশা চালক থেকে কোটিপতি” এবং এ.বি ব্যাংক এর ১১৪ কোটি টাকা লোপাট শিরোনামে যে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে আমি তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। উক্ত প্রতিবেদন সম্পূর্ণ বানোয়াট, মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

একজন ব্যবসায়ীর জন্য এটা অত্যন্ত সম্মানহানিকর ও অপমানজনক। এ.বি ব্যাংক থেকে এরশাদ গ্রুপের নামে ২০১৫-২০১৭ইং এই দুই বছরে চিনোহাইড্রো ও মেজর ব্রীজ প্রকল্পের ৬টি ভূয়া ওয়ার্ক অর্ডার দেখিয়ে এ. বি ব্যাংক থেকে ১১৪ কোটি টাকা লোন উত্তোলন বিষয়ে প্রচারিত সংবাদ সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। এ.বি ব্যাংকের সঙ্গে এরশাদ গ্রুপের ব্যবসায়িক সু-সম্পর্ক প্রায় একযুগ আগ থেকে এবং বিগত দিনে আর্থিক মুনাফা প্রায় ৫০ কোটি টাকা এরশাদ গ্রুপ এ. বি ব্যাংক’কে প্রদান করিয়াছে এবং ব্যবসায়িক সাফল্যের স্বীকৃতি স্বরূপ এ.বি ব্যাংক এরশাদ গ্রুপকে একাধিক পদক প্রদান করিয়া সম্মানে ভূষিত করেন। প্রকৃত পক্ষে এ. বি ব্যাংকের ডিএমডির অনৈতিক স্বার্থের কারণে ব্যাংকের সাথে আমার ব্যবসায়িক সম্পর্ক নষ্ট হচ্ছে।

ব্যবসায়ী হিসেবে বিভিন্ন সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানের সম্মাননা অর্জন

আমার পরিচয় আমি একজন ব্যবসায়ী। চেষ্টা করেছি পবিত্র কোরআনে উল্লেখিত ব্যবসা সংকান্ত মহান আল্লাহর নির্দেশনা “আহাল্লাল্লাহুল বাইয়্যা ওয়া হাররামাররিবা” অর্থাৎ মহান আল্লাহ মানব জাতির জন্য ব্যবসাকে হালাল করেছেন আর সুদকে হারাম করেছেন, চেষ্টা করেছি ন্যয় নিষ্ঠা ও সততার সাথে ব্যবসা পরিচালনা করার জন্য। এ.বি ব্যাংকসহ অন্যান্য ব্যাংক এর আর্থিক সহায়তায় এরশাদ গ্রুপ গড়ে তুলেন মিল ফ্যাক্টরী যেমন- এরশাদ ষ্টীল রি- রোলিং মিলস, জংদা রি-রোলিং মিলস্ নামে ইত্যাদি মিল ফ্যাক্টরী সহ শাহ মখদুম ট্রান্সপোর্ট এজেন্সি পরিবহন শাখায় প্রায় ১৫০ টির অধিক ট্রাক যাহা নিজেদের উৎপাদিত পন্যসহ সমগ্র বাংলাদেশে বিভিন্ন পন্য পরিবহনে নিয়োজিত। বাংলাদেশে সুনামধন্য বিভিন্ন  কোম্পানীর উৎপাদিত সিমেন্ট যেমন- বসুন্ধরা গ্রুপ, সেনাকল্যাণ সংস্থা, মীর সিমেন্ট, সেভেন রিং সিমেন্ট ইত্যাদি কোম্পানীর ডিলার হিসেবে তাদের উৎপাদিত সিমেন্ট বাজারজাত করিয়া উক্ত কোম্পানী হইতে একাধিক পদক প্রাপ্ত হই। বাংলাদেশের স্বনামধন্য বিশিষ্ট রড কোম্পানীর যেমন, বি.এস.আর.এম, কবির ষ্টীল, সালাম ষ্টীল ইত্যাদি ষ্টীল কোম্পানীর উৎপাদিত রড ডিলার হিসেবে যুগ যুগ ধরে বাজারজাত করিয়া ব্যবসার সাফল্যের স্বীকৃতি হিসেবে একাধিক পদকপ্রাপ্ত হই। সিরামিক্স জগতে বিশিষ্ট কোম্পানীর উৎপাদিত টাইলস্ যেমন- মীর সিরামিক, ডি.বি.এল. ষ্টার সিরামিক ইত্যাদি কোম্পানীর সিরামিক পন্য ডিলার হিসেবে যুগ যুগ ধরে বাজারজাত করে ব্যবসায়িক সাফল্যের স্বীকৃতি হিসেবে একাধিক পদক প্রাপ্ত হই এবং নিজস্ব লাইসেন্সে চায়না থেকে টাইলস্ আমদানি করে বাজারজাত করে আসছি।
শাহ মখদুম ট্রান্সপোর্ট এ ব্যবহৃত ট্রাকের টায়ার বিদেশ থেকে আমদানি করে নিজেদের প্রয়োজনসহ সমগ্র বাংলাদেশে টায়ার বাজারজাত করে আসছি।

পদ্মা সেতুসহ বাংলাদেশের অন্যান্য মেগা প্রজেক্টে বিদেশ থেকে পাথর আমদানি করে সরবরাহ করে আসছি এবং পদ্মা মেজর ব্রীজ প্রজেক্ট হইতে বেষ্ট পাথর সাপ্লাইয়ার হিসেবে চ্যাম্পিয়ন সার্টিফিকেট প্রাপ্ত হই এবং বর্তমানে পদ্মা ব্রীজের রেল লিংক প্রজেক্টসহ চিনো-হাইড্রো ইত্যাদি প্রকল্পে পাথর সরবরাহ চলমান রহিয়াছে।

কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে শত শত মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে পারায় গর্বিত এরশাদ গ্রুপ

নবীজির শিক্ষা, করো না ভিক্ষা। সেই শিক্ষার আলোকে আমি ভিক্ষা করিনি। করেছি কঠোর পরিশ্রম। করিনি দূর্নীতি, গ্রহণ করিনি ঘুষ। রিকশা চালানো বা ব্যবসা করাতো কোন অপরাধের পর্যায়ে পরে না । আমার ছাত্রজীবন থেকে লেখাপড়ার পাশাপাশি প্রথমে রিকশার ব্যবসা শুরু করি এবং উক্ত ব্যবসায় আমি শতাধিক রিকশার মালিক হই। এক পর্যায়ে রিকশার ব্যবসা ছেড়ে দিয়ে রড ও সিমেন্টের ব্যবসা শুরু করি এবং আমার ছোট তিন ভাইকে বিদেশে পাঠাই। তারা প্রত্যেকেই প্রায় ১০ বছর বিদেশে কর্মরত ছিলেন। তাদের উপার্জিত অর্থ আমার রড সিমেন্টের ব্যবসাকে প্রসারিত করে, সেই রড সিমেন্ট ব্যবসা হইতে অদ্যাবধি একাধিক প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে “এরশাদ গ্রুপে” পরিণত করি। যার জন্য আমি মহান আল্লাহ তা’লার কাছে শুকরিয়া জানাই। অপর দিকে রিকশা চালক বলে আমাকে ব্যঙ্গ করলে আমি নিজেকে ধন্য মনে করি, রিকশার ব্যবসা থেকে শুরু করে তিল তিল করে সততা, নিষ্ঠা ও পরিশ্রমের মাধ্যমে এরশাদ গ্রুপে পরিণত করনসহ নিজের দেশের শতাধিক মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে পারায় আমি নিজেকে গর্বিত মনে করি, কারণ আজ আমি নিজের দেশের শতাধিক মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে পারায় গর্বিত।

আমার ক্রয়কৃত ফ্ল্যাট আত্মসাত করার উদ্দেশ্যে এ.বি. ব্যাংকের ডিএমডি আব্দুর রহমান

বিগত ৩১ জানুয়ারি ২০২১ইং তারিখে একটি ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া ও ০৩ ফেব্রুয়ারি একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের ভূয়া ওয়ার্ক অর্ডার এর মাধ্যমে এ.বি ব্যাংক এর ১১৪ কোটি টাকা লোপাটের বিষয়ে যে সংবাদ সম্প্রচার করা হয়েছে তা সঠিক নয় এবং আমি উক্ত প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও নিন্দা জ্ঞাপন করছি।
মার্কেটে আমার ব্যবসার বিভিন্ন সেক্টরে প্রায় শত কোটি টাকার অধিক বিল পাওনা রয়েছে, সংবাদ প্রকাশের পর এই বিল উত্তোলন আমার জন্য একদিকে অনিশ্চিত, অন্যদিকে প্রায় ৫০০ থেকে ৬০০ কোটি টাকার ব্যবসা হারাতে বসেছি।
আমি উধাও নই এবং ভবিষ্যতে কখনই উধাও হয়ে যাওয়ার কোনরূপ পরিকল্পনাও নেই, কারণ আমি ব্যাংক থেকে লোন গ্রহণ করে তা আমার ব্যবসায় বিনিয়োগ করি। আমি দেশের বাহিরে কোন সম্পদ তৈরী করিনি, আমার দেশেও ব্যাংক এর বাহিরে কোন সম্পদ নেই। আমি দীর্ঘদিন ধরে করোনায় আক্রান্ত অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছি। এই সুযোগে একটি কুচক্রী মহল আমাকে আত্মগোপন দেখিয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রচার করে। যে কোন সময় যেকোন সংস্থা আমার সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে আমি সর্বদা প্রস্তুত আছি। আমার সকল ব্যাংকের সঙ্গে ব্যবসায়িক সু-সম্পর্ক রহিয়াছে। আমি এ.বি ব্যাংকের ওভার ডিউ এডজাস্ট করণসহ আমার রডের মিল মর্টগেজ করে দেওয়া সত্ত্বেও এ.বি ব্যাংক আমাকে নতুন বিনিয়োগের আশ্বাস দিয়ে আজ অবধি নতুন বিনিয়োগ না করার দরুন আমার রডের মিলটি অকেজো হয়ে পড়ে আছে। এ.বি ব্যাংকের বর্তমান ডি.এম.ডি জনাব আব্দুর রহমান পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বিভিন্ন মিডিয়া সংস্থার মাধ্যমে আমি ও আমার প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে একের পর এক ভূয়া তথ্য দিয়ে অপপ্রচার চালিয়ে আসছে যাহা একজন ব্যবসায়ীর জন্য অত্যন্ত সম্মানহানিকর। ইতিপূর্বে ও বিভিন্ন পত্রিকায় আমি ও আমার প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে যে মিথ্যা অপপ্রচার করা হয়েছিল আমি বেশ কয়েকটি জাতীয় পত্রিকার মাধ্যমে তাহার প্রতিবাদ জানিয়েছি। এ. বি ব্যাংকের ডি.এম.ডি আব্দুর রহমান সিটি ব্যাংক এ কর্মরত থাকাবস্থায় গুলশানস্থ প্রায় ০৭ (সাত) কোটি টাকা বর্তমান মূল্যের একটি ফ্ল্যাট আমার কাছে বিক্রি করে দীর্ঘদিন যাবৎ নিজে ভোগ দখল করিয়া আসিতেছে। আমার ক্রয়কৃত ফ্ল্যাটটি দখল বুঝিয়া পাওয়ার জন্য তাহার বিরুদ্ধে মামলা করিলে সে আরও ক্ষিপ্ত হয়ে একের পর এক আমি ও আমার প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে এহেন কর্মকাণ্ডে লিপ্ত বলে আমি মনে করি। প্রকাশিত সংবাদের প্রেক্ষিতে আমি বলতে চাই যে, ব্যাংকের টাকা লোপাট করিনি, বরং প্রদত্ত লোনের বিপরীতে ব্যাংক ব্যাংক সমূহের কাছে আমার স্থাবর-অস্থাবর সকল সম্পদ দায়বদ্ধ আছে। আমি আমার সকল ব্যাংকের হিসাব পুন:তফসিল করণে আমার সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। সকল গনমাধ্যম কর্মীর কাছে আমার আকুল আবেদন একটি কুচক্রী মহল দীর্ঘদিন ধরে  আমার প্রতিষ্ঠানের রিরুদ্ধে যে ষড়যন্ত্র চালিয়ে আসছে এ বিষয়ে সঠিক সত্য সংবাদ প্রকাশ করে আমি ও আমার প্রতিষ্ঠানের ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধারে সহায়তা কামনা করছি।
সড়ক দুর্ঘটনায় ওমানের দুখোম শহরে ৫ বাংলাদেশি নাগরিকের মৃত্যু
এই নিউজ মোট   442    বার পড়া হয়েছে


জাতীয়



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.