01:50am  Sunday, 01 Aug 2021 || 
   
শিরোনাম
 »  ধর্ষণের অভিযোগে ১০ মাস কারাভোগের পর জানা গেল তিনি নির্দোষ, বাড়ি ফিরে মৃত্যু     »  ১২ আগস্ট থেকে এইচএসসির ফরম পূরণ শুরু     »  গোবিন্দগঞ্জে মারপিটে আহত করে নগদ ২ লক্ষাধিক টাকা ও মোবাইল ফোন লুট     »  নির্মাণ শ্রমিকদের ভালো ভাবে কাজ করতে বললেন ভোলাহাট ইউএনও     »  দেশে ২১৮ জনসহ করোনায় মৃত্যু ২০৬৮৫, শনাক্ত ৯৩৬৯ জনসহ আক্রান্ত ১২৪৯৪৮৪ জন     »  ‘ফ্রি ফায়ার’ খেলাকে কেন্দ্র করে চুয়াডাঙ্গায় বাবা নিহত ছেলে আহত     »  ১৯৭১ এর ৩১ জুলাই কামালপুর সীমান্ত ঘাঁটিতে ভয়াবহ যুদ্ধ     »  আজ সিনহা হত্যার ১ বছর; সিনহার মৃত্যুর পর 'বন্দুকযুদ্ধের' ঘটনা কমেছে     »  পাত্তা দিচ্ছে না এডিস; নিজ নিজ জায়গা পরিস্কার রাখতে হবে নাগরিকদের     »  স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে পরিপালন করবে প্রতিটি পোশাক কারখানা   



বিল গেটস-মেলিন্ডার বিচ্ছেদের পিছনের খবর বেশি অবাক করবে বিশ্ববাসীকে



মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস ও মেলিন্ডা গেটস দম্পতির বিচ্ছেদের এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও এ নিয়ে জল্পনার শেষ নেই।

গত ৩ মে এক যৌথ টুইটার বার্তায় বিল-মেলিন্ডা বলেন, নিজেদের সম্পর্কের ওপর নিরীক্ষা ও চিন্তাভাবনার পর আমরা আমাদের সংসারের ইতি টানার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যুগল হিসেবে আমরা আর থাকতে পারব বলে আমাদের মনে হয় না।

২৭ বছর ঘর করার পর এই দম্পতির হঠাৎ বিচ্ছেদের ঘোষণা অবাক করেছে বিশ্ববাসীকে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপাড় বয়ে যাচ্ছে এখনো। 

অনেকেরই প্রশ্ন এতো দিন সংসার করার পর কেন তাদের মনে হলো আর একসঙ্গে পথচলা সম্ভব নয়? কী এমন ঘটেছে বিল ও মেলিন্ডার মধ্যে?

এর রহস্য উদঘাটনে ধনকুবের বিল গেটসকে নিয়ে বেরিয়ে এসেছে চাঞ্চল্যকর এক তথ্য। যা তার বিচ্ছেদের খবরের চেয়েও বেশি অবাক করবে বিশ্ববাসীকে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ‘দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল’ (ডব্লুএসজে)-এর একটি প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, অন্তত ৪০ জন নারীকে যৌন নিপীড়নকারী এক কুখ্যাত ধনকুবেরের সঙ্গে ‘যোগাযোগ’ রেখেছিলেন বিল গেটস। যা কোনোমতেই মেনে নিতে পারছিলেন না মেলিন্ডা। বিষয়টি মেলিন্ডাকে এতোটাই পীড়া দিত যে, একসময় এক ছাদের তলায় থাকতে আর রাজি হচ্ছিলেন না তিনি। অবশেষে বন্ধন ছিন্ন করলেন বিলের সঙ্গে।

ডব্লুএসজে জানায়, সেই যৌন অপরাধীর নাম জেফরি এডওয়ার্ড এপস্টেইন। ২০১৩ সাল থেকে জেফ্রির সঙ্গে যোগাযোগ ছিল ধনকুবের বিলের। জেফরি নিজেও ধনকুবের ছিলেন। স্বামীর এই যৌন নিপীড়কের ‘সম্পর্ক’ নিয়ে ভীষণ উদ্বিগ্ন ছিলেন মেলিন্ডা। বিষয়টি মেনে নিতে কষ্ট হচ্ছিল তার। আর সেই কারণেই সম্পর্কে ইতি টানতে ২০১৯ সাল থেকে বিভিন্ন সংস্থার আইনজীবীদের সঙ্গে দেখা করা শুরু করেন মেলিন্ডা। কিন্তু কোনো মতেই বিলকে থামাতে না পেরে অবশেষে ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

যদিও ডব্লুএসজের এমন দাবির বিপক্ষে এখনও পর্যন্ত কোনো বক্তব্য দেননি বিল গেটস। তবে বিলের সঙ্গে জেফরি এপস্টেইনের যোগাযোগ থাকার বিষয়কে স্বাভাবিকভাবেই দেখছেন মার্কিন নাগরিকরা।

কেননা যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন থেকে শুরু করে ডোনাল্ড ট্রাম্প ও  বহু মার্কিন রাজনীতিকের সঙ্গে সুসম্পর্ক ছিল জেফরির। তাদের নির্বাচনী প্রচারে অর্থ ঢেলেছিলেন তিনি। ২০০২ সালে নিউইয়র্কের এক সাময়িকীতে এপস্টেইনকে ‘চমৎকার মানুষ’ হিসেবে অভিহিত করেছিলেন ট্রাম্প। সে হিসেবে মার্কিন ধনকুবের বিল গেটসের সঙ্গেও প্রয়াত জেফরির সম্পর্ক থাকাটা অস্বাভাবিক কিছু নয় বলে মনে করছেন অনেকে।

তাছাড়া জেফরি এডওয়ার্ড এপস্টেইনের সঙ্গে বিল গেটস সাক্ষাৎ করেছেন এমন প্রমাণও রয়েছে। ২০১৯ সালের অক্টোবরে ছবি প্রকাশ করে এ নিয়ে প্রতিবেদনও ছাপিয়েছে নিউ ইয়র্ক টাইমস।

কে এই জেফরি এডওয়ার্ড এপস্টেইন?

আমেরিকার আদালতে কুখ্যাত যৌন অপরাধী হিসেবে দোষী সাব্যস্ত জেফরি এডওয়ার্ড এপস্টেইন। দেশটিতে ঘৃণ্য ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত জেফরি। একাধিক নাবালিকাকে যৌন হেনস্থায় অভিযুক্ত ছিলেন এই মার্কিন ধনকুবের। শিশু–কিশোরীদের পাচার ও জোর করে যৌনদাসীর কাজ করানোর মতো গুরুতর অভিযোগে কারাবাসে ছিলেন জেফরি এপস্টেইন।

তার বিরুদ্ধে ২০০২ থেকে ২০০৫ সালের মধ্যে ১৮ বছরের কম বয়সী অন্তত ৪০ জন মেয়েকে জোরপূর্বক যৌনকর্মে অংশ নেওয়ার অভিযোগ আনা হয়। ২০০৮ সালের ৬ জুলাই নিউজার্সিতে বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার হন তিনি।

আদালতে দোষী সাব্যস্ত হয়ে শেষ জীবনে কারাভোগ করেন জেফরি। ২০১৯ সালে ৬৬ বছর বয়সে কারাগারে অন্তরীণ অবস্থায়  মৃত্যু হয় এই নারী নিপীড়কের।

কারাগারে জেফরির অস্বাভাবিক মৃত্যু নিয়েও রয়েছে রহস্য। সে সময় জেফরি এপস্টেইনের অস্বাভাবিক মৃত্যুর বিষয়ে আনুষ্ঠানিক তদন্ত করে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (এফবিআই)।

অনেকের মতে, আত্মহত্যা করেছেন জেফরি। অন্তরীণ থাকা অবস্থায় বেশ কয়েকবার আত্মহত্যার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছিলেন তিনি।

কারাগারের ভেতরে এমন অপরাধীকে কেন বিশেষ নিরাপত্তাব্যবস্থার মধ্যে রাখা হয়নি - সে প্রশ্ন তোলেন নিউইয়র্কের তৎকালীন মেয়র বিল ডি ব্লাসিও।

আবার অনেকের ধারণা, আত্মহত্যার বদলে খুনও হয়ে থাকতে পারেন এপস্টেইন। তার বেআইনি কর্মকাণ্ড ফাঁস হলে নামী, ক্ষমতাসীনরা ফেঁসে যেতে পারেন বলে তাকে খুন করা হয়েছে।

কোয়াডে যোগ দেয়ার ব্যাপারে বাংলাদেশকে সতর্ক করলেন চীন


এই নিউজ মোট   284    বার পড়া হয়েছে


মনোকথা



বিজ্ঞাপন
ওকে নিউজ পরিবার
Shekh MD. Obydul Kabir
Editor
See More » 

প্রকাশক ও সম্পাদক : শেখ মো: ওবাইদুল কবির
ঠিকানা : ১২৪/৭, নিউ কাকরাইল রোড, শান্তিনগর প্লাজা (২য় তলা), শান্তিনগর, ঢাকা-১২১৭।, ফোন : ০১৬১৮১৮৩৬৭৭, ই-মেইল-oknews24bd@gmail.com
Powered by : OK NEWS (PVT) LTD.